কাঁচকলার কাবাব

চিংড়ী বিরিয়ানি

কাঁচকলার কাবাব

উপকরণ:
কাঁচকলা ১টি
খেসারির ডাল ১/৪ কাপ
পেঁয়াজ কুচি ২ টি
কাঁচামরিচ কুচি ৪ টি
ধনেপাতা কুচি পরিমাণ মতো
কাবাব মশলা ১ চা চামচ
লবণ পরিমাণমতো
ময়দা ১ চা চামচ
ভাজার জন্য তেল
ডিমের সাদা অংশ ১টি
বেশি বানাতে চাইলে সব কিছুর পরিমাণ বাড়িয়ে দিলেই হবে।

প্রণালীঃ

প্রথমে কাঁচকলা ও খেসারির ডাল সেদ্ধ করে নিতে হবে ।
সেদ্ধ খেসারির ডাল ও কলার খোসা ছাড়িয়ে ভালমতোমাখিয়ে নিন।
মাখানো ডাল ও কলার সাথে কাবাব মশলা, লবণ,  পেঁয়াজ কুচি, মরিচ কুচি,
ধনেপাতা কুচি, ময়দা ও ডিমের সাদা অংশ ভালভাবে মেখে কাবাবের আকারে
করে ডুবো তেলে লালচে করে ভাঁজতে হবে ।

ভাজা হয়ে গেলে  সস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার কাঁচ কলার কাবাব ।

এ কাবাব পোলাউ ও ভাতের সাথে খেতে মন্দ নয়।

 

 

চিংড়ী বিরিয়ানি

 

চিংড়ী বিরিয়ানি
চিংড়ী বিরিয়ানি


উপকরণ:
চাউল – এক কেজি, চিংড়ি- দেড় কেজি, আদা ও রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ করে,
টক দই- আধা কাপ, হলুদ সামান্য, মরিচ গুঁড়ো – আন্দাজ মতো, (ঝাল যে যেমন খায়),
গরম মসলা গুঁড়ো- ১ চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা- ১/২ কাপ, বেরেস্তা ও ডিম- সাজানোর জন্য,
তেল- ১ কাপ, লবণ পরিমাণ মতো।

প্রণালি:
প্রথমে যে চালের বিরিয়ানি রান্না করবো সেই চাল ভাঁপিয়ে নেবো।
ভাত রান্নার মতো ১ বলক দিয়ে পানি ঝরিয়ে নেবো।
বাসমতি চাউল হলে ভালো। পোলাও এর চাউল হলেও চলবে।
এরপর চিংড়িগুলোকে খোসা ছাড়িয়ে পরিষ্কার করে নেবো।
এই চিংড়িগুলোকে হলুদ-মরিচ গুঁড়ো, লবণ, আদা বাটা, রসুন বাটা,
পেঁয়াজ বাটা, গরম মশলা এবং টক দই দিয়ে মাখিয়ে ১ ঘন্টার জন্য মেরিনেট করে রাখবো।
তারপর তেল গরম হলে মশলাসহ চিংড়ি বাদামী না হওয়া পর্যন্ত ভুনে নেবো।
এরপর অল্প পরিমাণে পানি দিয়ে রান্না করব ।

এরপর চিংড়িগুলো মশলাসহ একটি বাটিতে উঠিয়ে রাখতে হবে। ওই একই হাঁড়িতে ১ লেয়ার ভাঁপানো চাল দিয়ে তার উপর চিংড়িগুলো মশলাসহ ছড়িয়ে দিয়ে উপরে আরেক লেয়ার চাউল
দিয়ে সাজিয়ে বেরেস্তা ছিটিয়ে দিয়ে এবার পাত্রের মুখ ভালোমতো বন্ধ করে দমে রাখতে হবে এক ঘণ্টা। ব্যাস হয়ে গেলো মজাদার চিংড়ি বিরিয়ানি। এবার পেঁয়াজ বেরেস্তা, ডিম দিয়ে সাজিয়ে
পরিবেশন ঝটপট করব মজাদার চিংড়ি বিরিয়ানি।

পল্লভি খান
পল্লভি খান

 

Author: পল্লভি খান​

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment