গ্রন্থাগার, পাঠ সংকট /মানসুর মুজাম্মিল

গ্রন্থাগার, পাঠ সংকট

শেখার জায়গা হলো বই । জানার জায়গা বই । পাঠাগার জ্ঞানের অন্যতম উৎস । বই কিনে পড়ার মতো অবস্থা সবার থাকে না । আর কটা বই বা কেনা যায় ? কিনে রাখার মতো পরিবেশ কই । মানুষের দু’রকম খাদ্য প্রয়োজন । খাবার যাবে পেটে । বুদ্ধি যাবে মাথায় । আমরা খাবারের পিছে যা খরচ করি তার ১% ও যদি বই কেনার পিছে দিতাম !

 

কখনো কখনো দেখা যায় পাঠাগার আছে পাঠক নেই । তবে কী ওখানে পাঠারা থাকবে ? পাঠারা কথা বলতে পারে না । উদ্ভাবন করতে জানে না । মানুষের সবকিছু প্রয়োজন । সেইজন্য তাকে পড়তে হবে । জানতে হবে ।

 

আগে পাড়া-মহল্লায় পাঠাগার ছিলো । এখন তেমন একটা চোখে পড়ে না । চোখে পড়লেও পাঠক সংকট দেখা যায় । এখন ফেসবুক,  ইন্টারনেট, ইউটিউব, ডিস চ্যানেল, সিনেমা, নাটকসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের লাইভ শো, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ইত্যাদি লাইব্রেরির পাঠক খেয়ে ফেলেছে । মানুষ সস্তা আনন্দের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। আগামী পঞ্চাশ, একশো বছর পর দেশ এক গভীর বুদ্ধিজীবী সংকটে পড়বে । অল্পতে মজা পেতে পেতে মানুষ আর গভীরে যেতে চাইবে না । তরুণ মেধাবী বলতে যাদের বুঝি তারা মেয়েদের সাথে আড্ডাবাজি করে তাদের চিন্তাশক্তিকে নারীমুখী করে রেখেছে । যিনি যতটুকু পড়েছেন সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার পর বইকে তালাক দিয়ে দিয়েছেন । অথচ জ্ঞান আহরণ স্পৃহা  মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ।

 

লাইব্রেরি সংখ্যা বাড়াতে হবে । মানুষকে পাঠাগারমুখী করতে হবে । আজ যারা প্রাতঃস্মরণীয় এরা বই পড়েনি, লাইব্রেরি ব্যবহার করেনি.. এমন ইতিহাস নেই ।

 

রেডিও, টেলিভিশন ও প্রিন্ট মিডিয়া সিনেমা হল, বিভিন্ন রাস্তার গুরুত্বপূর্ণ স্হানে, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে– পাঠাগারে যেয়ে বই পড়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে হবে । এমন কী বিজ্ঞাপন দেয়া যায় না যেখানে দেশের প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, সিনেমার নায়ক বা নায়িকা, সেরা ধনী লোকটি, মসজিদের ঈমাম, মন্দিরের পুরোহিত, গির্জার পাদ্রী, জেলে কামার মুচি বই পড়ছেন –

পথে যেতে যেতে । খেতে খেতে। ট্রেনে বাসে জাহাজে এরোপ্লেনে উটের পিঠে বই পড়ছে আর পড়ছে ?

 

আজ যে এতো হানাহানি রক্তারক্তি খুনাখুনি ধ্বংসের ইতিহাস.. ক্রমশ লম্বা  হচ্ছে তার কারণ মানুষের হিংস্রতা । জ্ঞানের স্বল্পতা ।

মানুষের মাথার সেল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে । গভীর জীবনবোধ বিলুপ্ত হচ্ছে । এর পরের পরিস্থিতি কী হতে পারে এবং এর জন্য কতটুকু প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে…

মানুষের সেসব ভাবনা নেই ।

সেজন্য পাঠাভ্যাস বৃদ্ধির দিকে

নজর দিতে হবে ।

 

মানসুর মুজাম্মিল

Author: মানসুর মুজাম্মিল

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment