ছোট্টবেলার ঈদ

ছোট্টবেলার ঈদ, অনুপা দেওয়ানজী

ছোট্টবেলার ঈদের দিনটির কথা ভাবনায় আসলেই একসাথে কত প্রিয়জনের মুখ যে স্মৃতির পাতায় এসে ভিড় করে।
কাকে ফেলে  কাকে যে দেখবো  নিজেই বুঝতে পারি না।
সে ভিড়ে কে নেই?

বন্ধুরা, পাড়া প্রতিবেশী,অধ্যাপক সোলেমান কাকা,হাবিবুর রহমান কাকা,কাকীমা, মায় আমাদের কলেজের দারোয়ান, পিওন, কাজের লোক সিরাজির মা।  
কত জনের নাম বলবো!
বড় হয়েছি কলেজ ক্যাম্পাসে। সুন্দর এক অসাম্প্রদায়িক পরিবেশে।সে পরিবেশে কখনো মনে হয়নি কে হিন্দু, কে মুসলমান, কে বৌদ্ধ আর কে খৃষ্টান।
মনে আছে ঈদ  বা পূজো আসার আর কতদিন বাকি তা নিয়ে  আমাদের  সব বন্ধুদের মধ্যে উৎসাহের শেষ ছিলো না।

ঈদের দিনে সকাল হলেই আমরাও স্নান সেরে সবচেয়ে সুন্দর পোশাকটি পরে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়াতাম।  প্রতিবেশী হেলেন কাকী নিজের হাতে কি সুন্দর পোলাও, কোর্মা আর সেমাই রান্না  করে আমাদের কি যে আদর করে তা পরিবেশন করে খাওয়াতেন তা মনে পড়লে বুকের ভেতরটা জানি কেমন করে ওঠে!

এমন স্নেহ বুঝি সত্যই দুর্লভ এখন।
কলেজের অত্যন্ত গরিব পিওন।
তাদেরও আবদার আমাদের অন্তত সেদিন সে একটু নিজেদের বাড়িতে তাদের হাতে বানানো সেমাই খাওয়াবে।
মা বলতেন, ‘যাও,ওরা এত আদর করে ডাকতে এসেছে।’
যেতাম তাদের বাসাতেও।

ছোট,বড় গরীব,ধনী এসবও যে একটা চিন্তার বিষয় এসব কখনো মনে কাজ করেনি।

তখনকার অভিভাবকদের শিক্ষাই হয়তো তেমন ছিলো।

ঈদ এখনো আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে তবে আমাদের সময়ের সাথে তাকে ঠিক এখন মেলাতে পারি না।

বর্তমান সমস্যাসঙ্কুল জীবনে বাড়ির ছেলেটা বা মেয়েটাকে নিরাপদে বেড়ে ওঠার জন্যে সারাক্ষণ যেখানে এত দুশ্চিন্তায় থাকতে হয় বাবা মার, তা দেখে ভাবি আমার শৈশবের সেই আনন্দময় ঈদের কথা।

কি যে অপূর্ব সুন্দর আর আনন্দময় দিন কাটিয়েছিলাম!
মাঝে মাঝে তেমন দিনের স্বপ্ন দেখে আজকাল সময়টাকে পার করি।
আহা!  তেমন দিন যদি আবার ফিরে পেতাম।

অনুপা দেওয়ানজী
অনুপা দেওয়ানজী

Author: অনুপা দেওয়ানজী

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment