ডাইনি, তুই আমার জীবনটা শেষ করে দিলি

মটকু ভাই

মটকু ভাই অনেক বিচার বিশ্লেষণ করে অনেক খেটে খুটে নিমোক্ত তথ্যগুলো আবিষ্কার করে তার নোট বইতে লিখেলেন

বিষয় : হাতের লেখা

পুরুষ : লেখা কোনো রকমে পড়া গেলেই হলো। কাকের ঠ্যাং-বকের ঠ্যাং কী হচ্ছে তা নিয়ে মোটেও মাথা ঘামায় না।

নারী : লেখা হতে হবে মুক্তোর মতো ঝরঝরে।

বিষয় : কেনাকাটা

নারী : প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের লিস্ট বানিয়ে বাজারে গিয়ে সেগুলো কিনে আনে।

পুরুষ : যতক্ষণ না বাড়ির চাল-ডাল সব শেষ বলে বউ চেঁচাতে শুরু করবে, ততক্ষণ পর্যন্ত বাজারে যেতে চায় না। বাজারে গিয়ে যা পছন্দ হয় তা-ই কিনতে চায়। কখনো কখনো দাম দিতে গিয়ে দেখে, সে মানিব্যাগ আনতে ভুলে গেছে।

বিষয় : মিতব্যয়িতা

নারী : এক টাকা দামের জিনিসের জন্য কখনোই দুই টাকা খরচ করবে না। তা সে যত পছন্দসই হোক না কেন।

পুরুষ : যা পছন্দ হবে তা কিনতেই হবে। জিতে কিংবা ঠকে যেভাবেই হোক।

বিষয় : তর্ক

নারী : তর্কাতর্কির শেষ কথাটি হবে নারীর।

পুরুষ : নারীর পর পুরুষের কথা বলা মানে নতুন তর্কের শুরু।

বিষয় : প্রেম

পুরুষ : প্রতিটি পুরুষই চায় কোনো নারীর প্রথম প্রেম হতে।

নারী : নারীরা চায় তারা তাদের ভালোবাসার পুরুষটির শেষ প্রেম হোক।

বিষয় : ব্রেকআপ

নারী : সম্পর্ক ভেঙে গেলে কাছের কোনো বান্ধবীকে জড়িয়ে হাপুস নয়নে কাঁদতে থাকে। কিংবা পুরুষ বড় নির্বোধ জাতীয় কবিতা লেখা শুরু করে এবং নতুনভাবে জীবনটা শুরু করার চেষ্টা করে।

পুরুষ : ব্রেকআপ হওয়ার ছয় মাস পরও সাবেক প্রেমিকাকে রাতবিরেতে ফোন করে ডাইনি, তুই আমার জীবনটা শেষ করে দিলি এ জাতীয় ডায়ালগ ঝাড়তে থাকে।

বিষয় : বিয়ে

নারী : মনে করে বিয়ের পর হাজব্যান্ড বদলে যাবে, কিন্তু তা হয় না।

পুরুষ : মনে করে প্রেমিকা স্ত্রী হওয়ার পরও একই রকম থাকবে। কিন্তু স্ত্রী বদলে যায়।

বিষয় : স্মৃতি

নারী : যে পুরুষটি তাকে বিয়ে করতে চায় তাকে সারা জীবন মনে রাখে।

পুরুষ : সেসব নারীকে মনে রাখে যাদের সে বিয়ে করেনি।

বিষয় : বাথরুম

পুুরুষ : সাধারণত ছয়টি জিনিস থাকে। সাবান, সেভিং ক্রিম, রেজর, টুথব্রাশ, আর তোয়ালে (ক্ষেত্র বিশেষে কোনো হোটেল থেকে মারিং করা।

নারী : সাবান, টুথব্রাশ, টুথপেস্ট তো আছেই সেই সঙ্গে শ্যাম্পু, চিরুনি, লিপস্টিক আরও কত কী! বেশির ভাগ জিনিস পুরুষেরা চিনবেই না।

বিষয় : জুতো

নারী : গরমের দিনে অফিস ডেস্কের নিচে পা ঢুকিয়ে জুতো খুলে রাখে।

পুরুষ : সারা দিন এক জুতা-মোজাই পায়ে দিয়ে রাখে।

বিষয় : পশু-পাখি

নারী : পশু-পাখি ভালোবাসে।

পুরুষ : পশু-পাখিকে কষ্ট দিতে ভালোবাসে।

বিষয় : সন্তান

নারী : নারীরা তাদের সন্তানদের পুরোপুরি চেনে। তাদের সুখ, দুঃখ, স্বপ্ন, বন্ধু, গোপন ভয় এমনকি গোপন প্রেম সম্পর্কেও তারা জানে।

পুরুষ : নিজের বাড়িতে মোট কয়জন মানুষ আছে তা-ও সব সময় মনে রাখতে পারে না।

বিষয় : অলংকার

নারী : যেকোনো ধরনের অলংকার পরলেই নারীদের সুন্দর দেখায়।

পুরুষ : বড়জোর একটা আংটি কিংবা ব্রেসলেট। এর চেয়ে বেশি কিছু পরলেই লোকে মন্দ বলতে শুরু করে।

বিষয় : বন্ধু

নারী : বান্ধবীরা মিলে আড্ডা দিতে গেলে নিজেদের সুখ-দুঃ খের আলাপেই ব্যস্ত থাকে।

পুরুষ : পুরুষদের আড্ডায় দোস্ত তোর লাইটারটা দে তো জাতীয় কথাবার্তাই বেশি শোনা যায়।

বিষয় : বাইরে খাওয়া

নারী : ভাগাভাগি করে বিল দেয়।

পুরুষ : সবাই চায় অন্যের ওপর বিল চাপিয়ে দিতে। কারও কাছেই ভাংতি থাকে না।

বিষয় : কাপড় ধোয়া

নারী : প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত কাপড় কাচে।

পুরুষ : চিমটি কাটলে ময়লা বের না হওয়া পর্যন্ত কাপড়ে সাবান ছোঁয়াবার সময় কই।

 

Author: রক্তবীজ ডেস্ক

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment