মিতুদি সিরিজ-১২

মিতুদি সিরিজ-৪

পরদিন মিতুদি এসে আমাকে বললো , খাবারটাতে এতই ঝাল দেয়া হয়েছে যে  মিতুদির ছেলে নাকি  খেতেই পারেনি।পুরোটাই ডাস্টবিনে ফেলে দিয়েছে ।

হালিমাকে জিজ্ঞেস করা হলে সে তো আকাশ থেকে পড়লো

সে উল্টো বললো ,গুষ্ঠিশুদ্ধো কারো মুখে ঝাল লাগে নাই শুধু আপনের পোলার মুখে লাগছে? তারে ডাক্তার দেখান খালাম্মা।

মিতুদি বললেন,  আমার ছেলে খাবারটা শুধু শুধু ফেলে দিয়েছে?

হালিমার জবাব, হেইডা আমি ক্যামনে জানি?  

এর মধ্যে আমার স্বামী সিলেট থেকে আসলো। ঘরে ধানের বস্তাগুলি না দেখে জিজ্ঞেস করলো ,ধানগুলি কোথায়? আমি যখন বললাম ওগুলি আমি ভাংগিয়ে চাল করে এনেছি। সে তো খুব খুশি। জিজ্ঞেস করলো রেডিওগ্রাম টা কোথায়?

আমি বললাম, বারান্দাতে।

এ কথায় সে চমকে উঠে বললো , কি? বারান্দাতে? সে কি? ওটা নষ্ট হয়ে যাবে না? হায় হায় কি করেছো তুমি?

আমি বললাম , হায় হায়ের কি আছে? ওটা তো নষ্ট হয়েই আছে। নুতন করে কি আর নষ্ট হবে? ততক্ষণে সে রেডিওগ্রামটা টেনে আবার ঘরে ঢুকিয়ে একাগ্র মনে সেটার তদারকিতে বসে গেলো।

কিন্তু কিছুতেই কিছু হয় না । সে রেডিওগ্রাম আর কখনোই বাজলো না। অবশেষে সেটা আমাদের খরগোশের থাকার ঘর হয়ে গেলো।  

অনুপা দেওয়ানজী
অনুপা দেওয়ানজী

 

Author: অনুপা দেওয়ানজী

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts