রকমারি কাচের চুড়ি

পোশাকে বাঙালিয়ানা ফুটিয়ে তুলতে কাচের চুড়ির বিকল্প নেই। শাড়ির সঙ্গে হাতে কাচের চুড়ি না পরলে সাজ অসম্পূর্ণ থেকে যায় বলে তাঁর মনে হয়তাই সাজপোশাকের অনুষঙ্গ হিসেবে কাচের চুড়ির আবেদন বরাবরই রয়েছে।  বিভিন্ন সময় কাচের চুড়ি পরার ঢঙে হেরফের হলেও তরুণীদের কাছে এর কদর সব সময়ই আছে। শাড়ি অথবা সালোয়ারকামিজের সাথে কাচের চুড়ি সহজেই মানিয়ে যায়। ফ্যাশনসচেতন তরুণীরা পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে নানান ঢঙে বিভিন্ন নকশার কাচের চুড়ি পরছেন।

রাজধানীর শপিং মল আর  ফুটপাতে বিভিন্ন রং, পুরুত্ব নকশার কাচের চুড়ি পাওয়া যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সামনে চুড়ির ভান্ডার নিয়ে প্রায়ই বসেন চুড়িবিক্রেতারা।

এখন কাচের চুড়ির নকশায়  ভিন্নতা এসেছে।  একরঙা সাদামাটা কাচের চুড়ির পাশাপাশি খাঁজকাটা, চুমকি পাথর বসানো, রাজস্থানি, কাশ্মীরিসহ নানা নকশার কাচের চুড়ি পাওয়া যাচ্ছে এখন। দেশীয় যেকোনো উৎসবে পরার জন্য তরুণীরা কাচের চুড়ি পছন্দ করছেন।
চুড়ি পরার কোনো বাঁধাধরা নিয়ম নেই। এখন প্রায় সব রঙের কাচের চুড়িই পাওয়া যায়। পোশাকের সঙ্গে রং মিলিয়ে যেমন পরা যায়, তেমনি পোশাকের রঙের সঙ্গে কন্ট্রাস্ট করেও পরা যায়।  দেশীয় পোশাকের সঙ্গে এক হাত ভরে চুড়ি পরলে অন্য হাতে একটি মোটা বালা পরা চলে অথবা দুই হাতেও চুড়ি পরা যায়। এখন চুড়ির সঙ্গে মিলিয়ে কাঠের বা অক্সিডাইজড ধাতুর মোটা বালাও পরছেন অনেকে। আবার একটু মোটা ধরনের কাচের  চুড়ি অল্প কয়েকটা এক হাতে ব্রেসলেটের মতো করে পরলেও ভালো লাগবে। চুমকি বসানো বা জমকালো নকশার চুড়িগুলোর সঙ্গে মাঝে পাথর বসানো মোটা চুড়ি কয়েকটা পরা যায়।

কোথায়
পাবেন
ঢাকার চকবাজার, নিউমার্কেট, গাউছিয়া, চাঁদনীচকে কাচের চুড়ির বিশাল সংগ্রহ রয়েছে। এমন কোনো চুড়ি নেই, যা এখানে পাওয়া যায় না। ছাড়া ঢাকার মৌচাক, আনারকলি, ইস্টার্ন প্লাজা, বসুন্ধরা সিটিসহ অন্য মার্কেটগুলোতেও কাচের চুড়ি পাওয়া যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার সামনে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে এবং ঢাকার বেইলি রোডের ফুটপাতেও সাধারণত চুড়িবিক্রেতারা তাঁদের পসরা সাজিয়ে বসেন। বিভিন্ন উৎসব সামনে রেখে কিছু ফ্যাশন হাউসও ক্রেতাদের জন্য তাঁদের কাচের চুড়ির সংগ্রহ নিয়ে আসে।

Author: রক্তবীজ ডেস্ক

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment