রক্তের দায়

নিশ্চিন্ত নিদ্রায় ঘুমিয়েছিল মানুষগুলো,
ইত্যবসরে অন্ধকার মাথা খায় কারো কারো ।
পিশাচ উন্মোচিত করে তার বিভৎস রূপ ।
অত:পর, সবকিছু এলোমেলো ।
এমনিভাবেই,কিছু বিপথগামী বিবেকহীন লোক।
জাতির ললাটে লেপ্টে দিল শোক।
কালো করে দিল ইতিহাসে একটি দিন, ১৫ ই আগষ্ট ।

শুধু বাড়ে কষ্ট, কখনোই মেলেনা উত্তর ।
শুধু মনে হয় বারে বারে,
ঐতিহ্যময় ইতিহাস এর সাথে কেন ঝুলে থাকে,
স্বার্থ আর ষড়যন্ত্রের লেজ ?
জন্ম নেয় অনেক প্রশ্ন অংকুরে, অংকুরে ।
সময়ের সাথে সাথে আশায় আশায় বেড়ে ওঠে।
যেনো, একদিন মিলবেই জবাব ইতিহাসের হৃদয় চিরে ।

জেনো, সম্ভাবনার সজীব মনন,
কোনো দ্বিধাভারে হতে পারে না ম্রিয় ।
রক্তের দামে পাওয়া সূর্য,
রাতের আড়ালে ঠিক জেগে থাকে,
কোনো লালসায় হয় না সে ফিকে, কোনোদিন ও ।
তবুও কেন এমন হলো,
কেন গেল প্রিয় মুখ, নিষ্পাপ প্রাণ,
ঘটল ঘৃণ্য  চেষ্টা সব মুছে দেয়া যায় যাতে ।

আজ ইতিহাস কেঁদে কেঁদে বলে,
এ যে বীরের যাওয়া, কী এসে যায় তাতে ?
অশুভ মুখগুলো বরং নিজেকে চেনালো
তাদের জন্য জুটল ঘৃণা চিরদিন, চারিদিকে ।
মনে রেখ ইতিহাস তার নিজের গতিতেই চলে
যতই করোনা টানাটানি, ফলাফলে সে
ঠিক ছবিটাকেই বেছে নেয়, জঞ্জাল ঝেড়ে ফেলে ।

একমাত্র ইতিহাসই অবশেষে কথা বলে ।
সত্যের দিকে চেয়ে থাকে অবিচল নয়নে ।
এবং অতি নি:সঙ্কোচে, সাদাকে সাদা এবং কালোকে কালো বলে ।
এভাবেই দিন যায়, রাত যায়,
শুধু ফুরায় না রক্তের দায় ।

 

আফরোজা বুলবুল

Author: আফরোজা বুলবুল

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment