সম্পাদকীয়

ঈদ মোবারক

ঈদ শব্দটার মধ্যে যেন কি একটা  আছে । কেমন এক রিনিক ঝিনিক বাজনা!  কেমন যেন চঞ্চল হয়ে ওঠে মন। একটা উৎসব উৎসব দোলা লাগে মনে। যে  যাই বলুক না কেন, এটা কিন্তু লাগেই। অনেকে বলেন, আমিও মাঝে মাঝে বলি, এখন আর কিসের ঈদ  । ঈদ ছেলে-মেয়েদের জন্য । এটা ঠিক ছেলেবেলায় ঈদে আমরা উথাল পাথাল আনন্দ করতাম।  সেই অবিরাম ঘোরাঘুরি, সেলামি নেয়ার প্রতিযোগিতা, সেমাই পোলাউ  খাওয়ার ধুম এখন নেই। সম্ভবও না। নাগিরক জীবন এখন অনেক ব্যস্ত। কিন্তু এখনকার  আনন্দটা অন্যরকম। ঠিক সেইরকম, আমাদের ছেলেবেলায় বাব-মায়েরা যেমন আনন্দ পেতেন । সন্তান আর তার বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়- স্বজনের জন্য রান্না করা,  তাদের খাওয়ানো,  তাদের জন্য ঈদের উপহার কিনে দেয়া, তাদের হাত থেকে উপহার পাওয়াও কম আনন্দের না। তাদের সালাম গ্রহণ, তাদের মাথায় আশীর্বাদের হাত রাখায় অন্য রকম   আনন্দ। যাদের নাতি-পুতি হয়ে গেছে তাদের আনন্দতো আরো বেশি। আর যাদের সন্তানরা বিদেশে থাকে,  ঈদ  করতে দেশে আসে তাদের আনন্দ শতধা বিস্তৃত । তাই বলি, ঈদের আনন্দ শুধু ছেলেবেলায় নয়, সব বেলায়।

শুধু তার রং বদলায়, রূপ বদলায়।

ঈদ সবার। তাই ঈদে নিজের সন্তানের সাথে আশে পাশের  দরিদ্র সন্তানগুলির কথাও একটু ভাবুন। পারলে তাদের গায়ে তুলে দিন একটি নতুন জামা। ব্যবস্থা করে দিন একটু সেমাই খাওয়ার।

অসীম  আনন্দে, নিরাপদে কাটুক আপনাদের ঈদ। রক্তবীজ পরিবারের পক্ষ থেকে  ঈদের শুভেচ্ছা।

Author: আফরোজা পারভীন

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts