১৬ই ডিসেম্বরের কথা / অনুপা দেওয়ানজী

মুক্তিবাহিনীর চুড়ান্ত বিজয়ের খবর আসছে বিভিন্ন জায়গা থেকে তখন।একে একে শত্রুমুক্ত হচ্ছে বিভিন্ন অঞ্চল।
আগরতলার মোহনপুর শরণার্থী শিবিরে অন্যান্য দিনের মতোই আমরা নিজেদের কাজে সেদিন ও যথারীতি ব্যস্ত ছিলাম। ক্যাম্পের বারান্দায় মাটির উনুনে কেউ  রান্নার জোগাড় করছে,কেউ বা বাচ্চাদের সামলাচ্ছে,কেউ বা যুদ্ধের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করছে। রেডিওতে মুর্হুর্মুহু ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল মানেকশ’র ‘হাতিয়ার ডাল দ ‘ বিবৃতি প্রচার চলছে।কাজের মধ্যেও সবার মধ্যেই এক তীব্র উত্তেজনা  কি হয়, কি হয়!
কারণ আমেরিকানর সপ্তম নৌ বহর তখন তীব্র বেগে ছুটে আসছে পাকিস্তানকে রক্ষা করার জন্যে।
হঠাৎ ছোটো বোন ছন্দা চেঁচাতে চেঁচাতে  লাফিয়ে এসে বললো, ঢাকা ফল করেছে ,ঢাকা ফল করেছে।

সাথে সাথে ক্যাম্পের ঘর ছেড়ে, যে যেখানে ছিলো কাজ টাজ ফেলে সবাই বাইরে বেরিয়ে এলো।
সে যে কি আনন্দ আর উল্লাস তা ভাষার প্রকাশ করা চলে ন!।
আমরা পাহাড়ি জায়গায় ছিলাম বলে সেখানে কোন মিষ্টির  দোকান ছিলো না।কিন্তু তাতে কি!
সবাই যার যার ঘর থেকে চিনির বয়াম আনতে ছুটলো আর সেই চিনি একে অন্যের মুখে তুলে দিতে লাগলো।সবার,চোখের জল হাসি আর আনন্দ সব একাকার  হয়ে সে ছিলো এক পরম মূহুর্ত।
ঢাকায় তখন আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকবাহিনীর প্রধানরা।বিকেল তিনটার সময়ে জেনারেল নিয়াজি  অবশেষে নব্বই হাজার পাকিস্তানি সৈন্য নিয়ে আত্মসমর্পণ করলেন।
আত্মসমর্পণের দিন সপ্তম নৌবহর বাংলাদেশের দক্ষিণপ্রান্তে প্রবেশ করে দেখে বাংলাদেশ পাকিস্তানের হাত থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত।

অনুপা দেওয়ানজী
অনুপা দেওয়ানজী

Author: অনুপা দেওয়ানজী

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts