শিরিনা ও সার্ক শীর্ষ মালে

সেপ্টেম্বর,১৯৯৭। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে মালদ্বীপে যাচ্ছি। রাতের ফ্লাইট। আকাশের অবস্থা ভালো নয়। আকাশে ঘনমেঘ, হালকা বাতাস, গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি।  আঁধার ভেদ করে মাঝে মাঝে ভয়াল গর্জনে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে । ঘনমেঘ পাশ কাটাতে থেকে থেকে সুপরিসর এয়ারবাস উথাল-পাথাল করছে স্কাইলাইনে। একবার বহুদূর নেমে আসছে, আবার দ্রুতই উপরে উঠে যাচ্ছে।  অন্যযাত্রীদের মতো আমারও  শুরু হয়েছে বুক ধড়ফড়ানি । ঘন্টাকাল চলার পর এক সময় ল্যান্ডিংয়ের ঘোষণা এলে ধড়ফড়ানি কমলো।  মূহূর্তেই হৃদয় হিম হয়ে এলো নীচে তাকিয়ে।  দেখি, পাইলট আকাশে একবার চক্কর দিয়ে সমুদ্রের মধ্যেই বিমান নামিয়ে দিচ্ছে । সমুদ্রের নীল পানি রাতের আঁধারে নিকষ…

Read More

আল মাহমুদের একুশের কবিতার​ ভাবানুবাদ​

আল মাহমুদ একুশের কবিতা ফেব্রুয়ারির একুশ তারিখ দুপুর বেলার অক্ত বৃষ্টি নামে, বৃষ্টি কোথায় ? বরকতের রক্ত। হাজার যুগের সূর্যতাপে জ্বলবে এমন লাল যে, সেই লোহিতেই লাল হয়েছে কৃষ্ণচূড়ার ডাল যে ! প্রভাতফেরীর মিছিল যাবে ছড়াও ফুলের বন্যা বিষাদগীতি গাইছে পথে তিতুমীরের কন্যা। চিনতে না কি সোনার ছেলে ক্ষুদিরামকে চিনতে ? রুদ্ধশ্বাসে প্রাণ দিলো যে মুক্ত বাতাস কিনতে ? পাহাড়তলীর মরণ চূড়ায় ঝাঁপ দিল যে অগ্নি, ফেব্রুয়ারির শোকের বসন পরলো তারই ভগ্নী। প্রভাতফেরী, প্রভাতফেরী আমায় নেবে সঙ্গে, বাংলা আমার বচন, আমি জন্মেছি এই বঙ্গে। Poet Al Mahmud Re-creation in English…

Read More

একুশের সাজ

একুশ বিশেষ একটি দিন,  বাঙালির শোকের  দিন। ভাষা শহীদদের স্মরণ করতে যেন বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতি  শহীদ বেদিতে অবনত শিরে ভালোবাসার শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করে থাকে। ভাষা শহীদদের প্রতি ভালোবাসা শ্রদ্ধার আবহ বিরাজ করে একুশের স্মৃতিবিজড়িত শহীদ মিনারের বেদীমূলে।  আজ এ দিবসটির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিতে বিশ্বময় মানুষ আমাদের ভাষা সৈনিকদেরকে ভালোবাসা আর শ্রদ্ধায় স্মরণ করছে। এ দিনটিকে আমাদেরকে স্মরণ রেখেই আমাদের সাজ-পোশাকের কথাটাও ভাবা দরকার। জাতির এই বীর সেনানীদের শ্রদ্ধায় স্মরণ করবো, তাঁদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করবো। আমাদের পোশাকটাও যেন তেমনি হয়, সেদিকটাতে সকলের সচেতন হওয়া প্রয়োজন। এদিন এমনভাবে সাজবেন যেন শোকের…

Read More

মিতুদির সংগীত শিক্ষা

এক বিকেলে মিতুদি আমার বাসায় আসলে আমি মিতুদিকে আম টুকরো করে কেটে কাঁটাচামচসহ দিলাম । মিতুদি আমগুলো খেয়ে বললেন,‘ উঁহু খেলাম বটে তবে ঠিক তৃপ্তি হোলো না । তুমি আমাকে কয়েকটা আস্ত আম দাও তো দেখি। কেন জানি ছোটো বেলায় যেভাবে আস্ত আমের খোসা ছাড়িয়ে খেতাম ঠিক সেভাবে খেতে ইচ্ছে করছে। আমি মিতুদির ছোট্টবেলা ফিরিয়ে দেবার জন্যে আস্ত আম পরিবেশন করলাম ভ আর মিতুদি সেই আমের খোসা ছাড়িয়ে যখন খেতে শুরু করলেন সে দৃশ্য দেখতে আমার ভালো লাগলো না বলে আমি অন্য ঘরে চলে গেলাম।ওভাবে খাওয়া বাচ্চাদের জন্যে সুন্দর হলেও…

Read More

আগুন ঝরা ফাগুণ

কৃষ্ণচূড়া ফুলের ফাঁকে কোকিল ডাকা ফাগুণ ধানের ক্ষেতে দোল খেয়ে যায় আউলা বাতাস আগুন আগুনঝরা ফাগুণ। মায়ের কোলে শিশুর হাসি গাঁয়ের বধু,নাকের নোলক, রাখালছেলে, মধুর বাঁশি ফুটন্ত ফুল সুবাস মাখা পিচঢালা পথ রফিক শফিক রক্তমাখা ফাগুণ ফাগুণ আগুনঝরা ফাগুণ । ফাগুণ ফাগুণ ভাষার আগুন হাজার মায়ের চোখের জলে বুক ভাসানো কালবোশেখীর ঝড়ো হাওয়া, মনটা যে বিষন্ন করা অবোধ শিশুর আধফোটা বোল হৃদয়হরা মায়ের ভাষার জন্য সবাই  জাগুন- ফাগুণ ফাগুণ আগুণঝরা ফাগুণ।

Read More

ইজেলের র‌ঙে ফেব্রুয়ারী

তোর কি ম‌নে আছে,ফাগুন? অলৌ‌কিক স‌ম্মোহ‌নের স্বচ্ছ অনুরা‌গের বিমূর্ত আমার মু‌খে মুখ লা‌গি‌য়ে তোর সেই হঠাৎ বে‌রি‌য়ে পড়া অব্যক্ত বুলি! সবুজ কন্ঠস্বরে মো‌মের মত হৃদ‌য়ে তরঙ্গ বা‌জি‌য়ে সে সুর উদ্বেল অনুভূ‌তি‌তে ম‌নের বো‌ধে যেন ঝলম‌লে ছ‌ন্দের জলোচ্ছ্বা‌সে ভে‌সে‌ছি। হা‌রি‌য়ে যে‌তে যে‌তে কোল জু‌ড়ে লে‌প্টে থাকা সেই বর্ণমালা তো‌কে অনুভ‌বের অচেনা প্রহ‌রে আশ্রয় ক‌রে কাঁকর বিছা‌নো পথ পে‌রি‌য়ে‌ছি। জা‌নি যে শিশু‌টির মু‌খের ভাষার জন্য তোর বাবা রক্ত দি‌য়ে রাজপথ রাঙা‌লো সেখা‌নে কি আজ তোর প্লাবন শো‌নে কিছু? কৃষ্ণচূড়ার অস্ফুট বাতা‌সের ক্রন্দন ‌শি‌শি‌রে ভেজা ঘাসফুল পা ছোঁয়‌নি তাঁর? কতকাল বি‌নিদ্র প্রহ‌রে সে…

Read More

ভাষাসংগ্রামী আহমদ রফিক

লেখক, গবেষক ও ভাষাসংগ্রামী আহমদ রফিক ১৯২৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তদানীন্তন ত্রিপুরা জেলার ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার শাহবাজপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম- আব্দুল হামিদ এবং মাতার নাম- রহিমা খাতুন। তিনি ১৯৪৭ সালে মেধা তালিকায় ষোড়শ স্থানসহ ম্যাট্রিক, ১৯৪৯ সালে দ্বাদশ স্থানসহ ইন্টারমিডিয়েট এবং ১৯৫৮ সালে এমবিবিএস পাশ করেন। কর্মজীবনে শিল্প ব্যবস্থাপনার সাথে জড়িত ছিলেন। বর্তমানে সাহিত্যকর্মই তাঁর একমাত্র পেশা, নেশা ও সাধনা। ছাত্র জীবন থেকে সাহিত্য ও রাজনীতিতে সংশ্লিষ্ট। বিভাগপূর্বকাল থেকে প্রগতিশীল-অসাম্প্রদায়িক ছাত্র-রাজনীতির কর্মী। বিভাগোত্তর কালে বিভিন্ন প্রতিবাদী ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অংশগ্রহণ। ভাষা আন্দোলনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সক্রিয় সংশ্লিষ্টতা।…

Read More