সম্পাদকীয় (৭ই মার্চ)

7th March Speech of Sheikh Mujibur Rahman

আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। আমাদের স্বাধীনতার বীজতলা। এক মহানায়কের বজ্রকণ্ঠে সংগ্রামের মন্ত্রোচ্চারণের দিন। দৃঢ় শপথ আর অমিত প্রত্যয়ে বেগবান হবার দিন। লক্ষ কোটি সালাম জানাই সেই মহানায়ককে। একটি স্বাধীন দেশের মুক্ত মাটিতে দাঁড়িয়ে দৃপ্ত কন্ঠে কথা বলবার স্বপ্ন যিনি দেখিয়েছিলেন। যিনি ছিলেন আমাদের বরাভয় । আমাদের বাতিঘর। আর সালাম জানাই সেই বীর ভাই-বোনদের নিজের রক্তের তেজে ধুয়ে যারা এনেছেনে এই স্বাধীন স্বদেশ । সম্ভ্রম আর কান্নার বিনিময়ে এ দেশ যাদের অর্জন সেই বোনদের। আর নিজের অঙ্গ খুইযে দেশকে যারা পূর্ণাঙ্গ করেছেন সেই মানুষগুলিকে। আমাদের মুক্তিযোদ্ধা ভাই-বোন, তোমরা আমাদের সূর্যসন্তান। তোমরা…

Read More

বিন্তি

বিন্তি। বিন্তি ওর ডাকনাম। এ বয়সে এই বিন্তি নামটি নিয়েও বিন্তি বেশ বিব্রত। কারণ বড় হয়ে সে জেনে গেছে, বিন্তি তাস খেলার একটি নিয়মের নাম। ওর আসল নামটি অবশ্য বেশ শোরগোলে। আর সেই নামের জোর-প্যাঁচে অনেকে কীর্তির চেয়ে তাকেই মনে রাখে বেশি। যেমন কুষ্টিয়া জেলার এক স্কুল শিক্ষকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়েছিলো কিছুটা কীর্তির জের ধরেই। ধীরে ধীরে সে জেনেছিলো, ভদ্রলোক একজন মুক্তিযোদ্ধাও। প্রায়ই ফোন করে তিনি বিন্তির খোঁজ-খবর নেন। আলাপ-আলোচনায় বোঝা যায়, ভদ্রলোক পরিমিতবোধসম্পন্ন এবং মর্মজ্ঞ। কথা বলেন পোড় খাওয়া মানুষের মতো। কিন্তু ঘরপোড়ার গন্ধ থাকে না তাতে। বিষয়টি…

Read More

বিখ্যাত মানুষের প্রেমের কথা

প্রেম  অনেক রকম। বিচিত্রি  তার রূপ রং । আর এই বৈচিত্রের কাছে ধরা পড়ে প্রতিটি মানুষ। সাধারণ অসাধারণ নির্বিশেষে। আজ  কয়েকজন বিখ্যাত মানুষের প্রেমের কথা বলা হল। রবীন্দ্রনাথ : কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর যে কত বড় মাপের  প্রেমিক ছিলেন, তা আমাদের সবারই জানা। ‘ভালবেসে সখি নিভৃতে যতনে, আমার নামটি লিখো  তোমার মনেরও মন্দিরে’ অথবা  ‘সখি ভালবাসা কারে কয়’ এই ধরনের গান উঁচুমাপের  প্রেমিক মন না থাকলে  লেখা যায় না। প্রথম  যৌবনে কাদম্বরী  দেবী, আর  যৌবন সায়াহ্নে  মৃণালিনী   দেবীকে হারিয়ে তিনি ছিলেন দিশেহারা।  আর্জেন্টাইন নারী  ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর সঙ্গে তাঁর  প্রেমের সম্পর্ক ছিল…

Read More

পঙ্খী

পঙ্খী, মাত্রই ঘুম থেকে উঠে লিখতে বসলাম। ঘুমের মাঝে স্বপ্ন দেখছিলাম, তুমি আমাকে চিঠির জন্যে ঝাড়ি দিচ্ছো। তাই ভয় পেয়ে লিখতে বসলাম। রাতে তোমার সাথে কথা হয়নি, একা একা শুয়ে থাকলে অদ্ভুত সব চিন্তা মাথায় বাসা বাঁধে। পঙ্খী, আমি অত্যন্ত দুঃখিত যে তোমার লেখার এই প্যাডটি আমি তোমায় সময়মতো দিতে পারিনি। তুমি সব সময় হাসি খুশি থাকবে, কারণ তুমি হাসিখুশি না থাকলে বা চটপট কথা না বললে আমার মন খারাপ হয়ে যায়। তখন নিজের অজান্তেই অনেকের সাথে খারাপ ব্যবহার করে ফেলি। তুমি সব সময় হাসিখুশি থাকবে, আমার সাথে চটপট কথা…

Read More

গেটিসবার্গ থেকে রেসকোর্স

7march

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনায়ক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন  সময়ে তাদের জনগণের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দিয়ে থাকেন। এর মধ্যে কোন কোন বক্তৃতা স্থান ও সময়কে অতিক্রম করে কালজয়ী হয়ে থাকে। ১৮৬৩ সালের ১৯ নভেম্বর গেটিসবার্গে দেয়া আব্রহাম লিংকনের বক্তৃতা, ১৮১৪ সালের ২০এপ্রিল ইম্পেরিয়ল গার্ড রেজিমেন্টের উদ্দেশ্যে প্রদত্ত নেপোলিয়ান পোনাপার্টের ভাষণ, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে দেয়া উইনস্টন চার্চিলের কয়েকটি ভাষণ, ১৯৪০ সালের ১৮ জুন ফরাসীবাসীর উদেশ্যে দেয়া চার্লস দ্য গলের ভাষণ, ১৯২২ সালের ১৮ মার্চ অসহযোগ আন্দোলনকালে গ্রেফতরের পর আহমেদাবাদে সি এন ব্রুূমফিল্ডের আদালতে দেয়া মহাত্মা গান্ধীর জবানবন্দীর বক্তব্য, ১৯৪৪ সালের জুলাই মাসে আজাদ…

Read More

৭ মার্চের ভাষণ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান​

আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ । আসুন একবার ফিরে দেখি ১৯৭১ এর এই দিন আর তার আগের প্রেক্ষাপট । ১৯৭০ সালে আওয়ামী লীগ পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। কিন্তু পাকিস্তানের সামরিক শাসকগোষ্ঠী এই দলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরে বিলম্ব করতে শুরু করে। প্রকৃতপক্ষে তাদের উদ্দেশ্য ছিল, যে কোনভাবে ক্ষমতা পশ্চিম পাকিস্তানী রাজনীতিবিদদের হাতে কুক্ষিগত করে রাখা। এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট জেনারেল ইয়াহিয়া খান ৩রা মার্চ জাতীয় পরিষদ অধিবেশন আহ্বান করেন। কিন্তু অপ্রত্যাশিতভাবে ১লা মার্চ এই অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য মুলতবি ঘোষণা করেন। এই সংবাদে পূর্ব পাকিস্তানের জনগণ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে।…

Read More

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের পূর্বাপর

Bangabondhu

১ মার্চ ইয়াহিয়া খান জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত  ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে  লাখ লাখ মানুষ রাজপথে বেরিয়ে আসে।  অফিস আদালত স্কুল কলেজ হাটবাজার সবকিছু বন্ধ হয়ে যায়। ঢাকাসহ দেশের প্রধান শহরগুলোতে কার্ফু জারি করা হয়।  বিক্ষুব্ধ জনতা সান্ধ্য আইন উপেক্ষা করে অব্যাহতভাবে আন্দোলন চালিয়ে যায়।  এক পর্যায়ে সমারিক জান্তার বুলেটের আঘাতে ঢাকাতে ২৬ জন আর চট্টগ্রামে ১২ জন নিহত হলো। খুলনায় মিছিলে গুলি চালিয়ে হত্যা করা হলো ২১ জনকে। এমনিভাবে যশোর, পাবনা, ফরিদপুর, দিনাজপুর প্রভৃতি জেলাতে নিহত হলো অসংখ্য মানুষ। কিন্তু বিপ্লবী জনতা সকল মৃত্যুকে তুচ্ছ করে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে দৃঢ়প্রত্যয়ে এগিয়ে…

Read More