একজন সমাজ সেবক মোঃ মতিয়ার রহমান মোল্যা

মোঃ মতিয়ার রহমান মোল্যা প্রচার বিমুখ একজন মানুষ।গ্রামের বাড়ি বর্তমান শাহাবাদ ইউনিয়নের চরবিলা। চার বছর বয়সে পিতাকে হারিয়েছিলেন। উচ্চ পর্যায়ের কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছিল না।কিন্তু জ্ঞানের ভান্ডার ছিলেন।বই পড়া তার নেশা ছিল।রুপগঞ্জ বাজারে ‘ইসলামিয়া লাইব্রেরী’ নামে একটি লাইব্রেরী ছিল। পরে যার নাম হয় ‘ন্যাশনাল লাইব্রেরী।’ওখান থেকে বই সংগ্রহ করে পড়তেন। ১৭ বছর নয়নপুর-দূর্গাপুর ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট(চেয়ারম্যান) ছিলেন।নয়নপুর স্কুল,দূর্গাপুর রাস্তা,এরকম অনেক সামাজিক ও সংস্কারমূলক কর্মকান্ড তিনি করেছেন। তখন এখনকার মতো ফলক উন্মোচন হতো না।নড়াইলে এক সময় বড় ভাই নামে পরিচিত মোঃ মতিয়ার রহমান সাদাসিধা মানুষ । কিন্তু সৌখিন ছিলেন।বঙ্গবন্ধু যখন আওয়ামীলীগ গঠন…

Read More

আরজ আলী ও লামচরি সন্দর্শনে 

দেশের ক্ষণজন্মা, স্বশিক্ষিত দার্শনিক আরজ আলী মাতুব্বর। বরিশালের লামচরি গ্রামে তাঁর নিবাস। প্রথমে কৌতূহল তারপর খোঁজখবর অবশেষে গবেষণা। আমাদের পশ্চাদপদ সমাজে তাঁকে পরিচয় করানো দরকার। তাঁর দার্শনিক তত্ত্বে সমৃদ্ধ রচনা সামগ্রি মেলে ধরাও দরকার। এই তাড়নায় ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ এই টানা প্রায় ৬ বছর ধরে ঢাকা–বরিশাল যাতায়াত। উঁই–কাটা জীর্ণশীর্ণ ইতস্তত বিক্ষিপ্ত আরজ আলীর যাবতীয় পাণ্ডুলিপি এখানে সেখানে ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় ছিল। সেগুলো কয়েক বছর ধরে অনুসন্ধানে উদ্ধার করা গেল। অতপর জীবনী রচনা করা হলে বাংলা একাডেমি’র তৎকালীন মহাপরিচালক ড মাহমুদ শাহ কোরেশী সাহেব অতি আগ্রহে তা গ্রহণ করে স্বল্পতম সময়ে…

Read More

বিখ্যাতদের মজার কথা

‘আইনস্টাইনের ‘থিউরি অফ রিলেটিভিটি’ অল্প কয়েকজন বিজ্ঞানীই শুধু বুঝতে পেরেছিলেন।কিন্তু তা সত্ত্বেও এই আবিষ্কারের ফলেই তাঁর জনপ্রিয়তা সর্বস্তরে পৌঁছে যায়।এক চুরুট কোম্পানি তো তাদের চুরুটের নামই রেখে ফেলে রিলেটিভিটি চুরুট।এ সময় আমেরিকা ভ্রমণের আমন্ত্রণ পেয়ে সস্ত্রীক রওনা হন তিনি।জাহাজ থেকে নামার মুহুর্তেই সাংবাদিকরা তাঁকে ঘিরে ধরেন।একজন একেক রকম প্রশ্ন করতে থাকেন।এক সাংবাদিক প্রশ্ন করে বসেন,আচ্ছা বলুন তো মেয়েরা আপনাকে এত পছন্দ করে কেন?আইনস্টাইন মৃদু হেসে উত্তর দেন, আপনি জানেন কি না জানি না, মেয়েরা সবসময় লেটেস্ট ফ্যাশন পছন্দ করে, আর এ বছরের ফ্যাশন হল ‘থিউরি অফ রিলেটিভিটি’, আমাকেও ওটার অংশ…

Read More