আমি আপনারে ছাড়া করিনা কাহারে কূর্ণিশ

বিশ্বসাহিত্যে একেক সময় এক এক ধরণের ইজমের বা দার্শনিক মতবাদের প্রভাব এসেছে। কখনও সুপিয়ারিলিজম, কখনও মিস্টিসিজম,কখনও ফিউচারিলিজিম।এমন শতাধিক ইজম আবর্তিত হয়েছে সৃজনশীল মননে। মানুষের চিন্তা উপলব্ধি ও বোধ পরিবর্তিত হয়ে এগিয়ে যায় পরিপক্কতার দিকে। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন ইজমের প্রভাব ব্যাপক হয়ে ওঠে।এরকম একটি ইজম বা দর্শন হ’ল অস্তিত্ববাদ, ইংরেজি ‘এক্জিসটেনশিয়ালিজম’।মানব হৃদয়ের ক্ষরণে জর্জরিত আত্মা , এক সময় দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে অস্তিত্ববান হয়ে ওঠে এবং শক্ত অবস্থান গ্রহণ করে। কখনও প্রতিবাদী, কখনও সংগ্রাম মুখর হয়ে ওঠা।বেঁচে থাকাটাই চরম সত্য।এ বোধ কার্যকর হয়, একনিষ্ঠ হয়। এ বোধ থেকেই…

Read More

গৈরিক যুবরাজ এসেছিলেন, ছিলেন ও থাকবেন।

  চিরবঞ্চিত, নিপীড়িত, ভাগ্যহত মানুষের কন্ঠস্বর, কায়মনবাক্যে চির সবুজ প্রেমের, বিরহীপ্রেমের যে আকুতি সেই প্রেমের কবি, বিরহের কবি কাজী নজরুলকে আমরা যেভাবে তাঁকে পেয়েছিলাম তা এভাবে……….. ‘গৈরিক যুবরাজ এসেছিলেন, ছিলেন ও থাকবেন।’ নজরুল সম্পর্কে লেখা অনেক কঠিন। তিনি কোথায় নেই একথা ভাববার অবকাশ নেই এ কারণে যে তিনি সবখানেই ছিলেন,আছেন, থাকবেন। এক. সময় প্রেক্ষিতের ভিন্নতায় নজরুল মানস ও প্রতিভার বিশ্লেষণ বহুমাত্রিকতায় উন্নীত। বাংলা সাহিত্যে নজরুল এর আর্বিভাবে যে উপাদনগুলি সাহিত্যমোদী ও বিদগ্ধজনের মনোলোক ও বহিরাঙ্গনে আলোড়ন তুলেছে ও পরবর্তীকালে সমাজ বিবর্তনের আন্দোলনে প্রগাঢ় প্রভাব ফেলেছে তা বিভিন্নভাবে বিশেষায়িত হয়ে বিভিন্ন…

Read More

ফেসবুক প্রেম

কি করছো জানু? তোমার কথা ভাবছি!!  ও তাই! তা কি ভাবছো? আমাদের সম্পর্ক তো ৬ মাস হয়ে গেল, অথচ তোমাকে এখন পর্যন্ত দেখলাম ই না। তোমার একটা ছবি দিবে? প্লিজ!!   না আমি খুব কালো, সুন্দর না। তুমি আমাকে দেখলে আমাকে আর ভালোবাসবে না!! আমাকে ভুলে যাবে!! আমি তোমাকে হারাতে চাই না। (এই বলে মেয়েটা আর তার ছবি দিলো না ছেলেটাকে, কারণ মেয়েটি কালো ছিলো, দেখতে সুন্দর ছিলো না) ” “মেয়েটা মাঝে মাঝে ছেলেটার প্রোফাইলে গিয়ে লুকিয়ে লুকিয়ে ছেলেটার ছবি দেখতো। ছেলেটা অনেক সুন্দর ছিলো। “মেয়েটা ভাবতো আমি হয়তো ওর…

Read More

ঘাসফুল মেয়ে

সত্যি করে বলতো মেয়ে দুঃখভরা তৃণসবুজ ধূসররঙা পথের ধূলো     আলতা লালের হৃদয়শিখর     সরিষা ক্ষেতের চমকে হাসা      নীককন্ঠী আঁচল কোথায় নিটোল পায়ে দগ্ধ পায়েল আগুনক্ষত কোমরবিছা তীব্র বিষের দীঘির কাজল     বেলোয়াড়ী শাড়ীর পাড়ে     চুলের ভাজে বেলীর সাজে     অশ্রু চোখে ভাসিস কেন। প্রমোদ বাসর চুমুর আমোদ ফুরফুরে সেই সফেদ সলাজ ফুরালো বুঝি নীলভুলে সব       মেয়ে তুই ভাঙিস কেন       ঘাসফুল হাসে মিষ্টি রোদে       শিশির মুকুট জড়িয়ে মাথায় নকশী কাঁথার প্রেম বুননে নিজের ভিতর হোলির রঙে হাতের মুঠোয় ভরবি আকাশ। Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

বেদনা বিধূর

   জীবন আজ বৃথা হইলো                   সঙ্গ তলে               এ কোন ছলে, উড়িবো আকাশ পানে পাখনা মেলে। এ তরী বাইবো না আর           খেয়ার ছলে             গঙ্গা জলে, ছুটি ঐ সব ছুটি আজ জলের ছলে।     গগন আজ বড়ই বিধূর         মেঘলা ছলে        মেঘের জলে, ভারী ঐ আকাশ ভারী সঙ্গ তলে। Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

মন গহিনে

                                                      এক জীবনে হাঁটছি দুজন চলছে পথের খেলা                       মেঘ বৃষ্টি ঢাকলে আকাশ সকাল সন্ধ্যাবেলা-                       ভালোবাসার রঙধনুটা রঙটি মেলে ধরে                       স্মৃতির সকাল রৌদ্র পোহায় জোছনা মাখা ঘরে।                       এমনি করে যাকনা ভেসে সুখ দুঃখের ভেলা                       জোছনা ঘরে ভাঙ্গলো যে বাঁধ শুকতারাদের মেলা ,                       এক জীবনে হিসাব-নিকাশ ডুবসাঁতারে কাটে ,                       পাইনি যাহা থাকনা সে সব জীবন নদীর ঘাটে।                       এই জীবনে যা পেয়েছি তোমার দুহাত ধরে,                       ভরছে গোলা শস্যদানায়…

Read More

পাতি চোখগ্যালো

পাতি চোখগ্যালো (বৈজ্ঞানিক নাম Hierococcyx varius ) (ইংরেজি নাম Common Hawk-Cuckoo) কুকুলিডি পরিবারের অন্তর্গত হেইরোকুককিস গণের এক ধরনের কোকিল। এরা বাংলাদেশের সুলভ এবং আবাসিক পাখি। এদেরকে দেশের সর্বত্র দেখতে পাওয়া যায়।  আই. ইউ. সি. এন. এই প্রজাতিটিকে Least Concern বা আশংকাহীন বলে ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশেও এরা Least Concern বা আশংকাহীন   বলে বিবেচিত। বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে  এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত। পাতি চোখগ্যালো লম্বা ডোরাওয়ালা লেজের মসৃণ ধূসর পাখি। এদের দৈর্ঘ্য ৩৪ সেমি.,ওজন ১০০ গ্রাম, ডানা ২০ সেমি., ঠোঁট ২.৮ সেমি., পা ২.৩ সেমি., লেজ ১৭ সেমি.। পিঠ ধূসর ও দেহতল লালচে–সাদা। গলা সাদা ও বুক লালচে সাদা। পেট ও বগলে আবছা বাদামি ডোরা থাকে। ডানার নিচের অংশ লালচে। …

Read More

ভালো থাকার চেষ্টা

ভালো আছি ভালো থেকো আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো। প্রিয় নায়ক সালমান শাহকে অনেক ভালবাসি। আমি যদি তার সাথে দেখা করার সুযোগ পেতাম তাকে প্রশ্ন করতাম, একজন মানুষ কিভাবে কোটি মানুষের নয়নের মনি হয় ? কোন প্রতিভার কারণে একজন মানুষকে লক্ষ, কোটি মানুষ হৃদয়ে ধারন করে। এখনকার যুগে অনেক তারকা শিল্পীকে টেলিভিশন, সিনেমায় দেখি, শুনি, তারা আকাশে থাকে না, তবুও তারকা কিন্তু আমাদের সালমান শাহ আকাশে থাকে, বাস্তবে থাকে না। তাহলে সে কি মহাতারকা নাকি তার চেয়েও বেশী! আমরা প্রতিদিন ভালো থাকার চেষ্টা করি । সংসার জীবন, চাকুরী জীবন, ব্যক্তিগত সমস্যা…

Read More

সবার জন্য বসন্ত

“আজি এ বসন্ত দিনে বাসন্তী রঙ ছুয়েছে মনে; মনে পড়ে তোমাকে ক্ষণে ক্ষণে চুপি চুপি নিঃশব্দে সঙ্গোপনে” ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিনে বসন্ত এসে গেলো, বুকে নিয়ে শিমুল,পলাশ আর কৃষ্ণচূড়া। বুকে এতো রক্তিম লাল ছিল বলেই বুঝি– একুশ,স্বাধীনতা বসন্তের অর্জন!! আমি ফাল্গুনের বার্তাবাহক– কারন জন্ম আমার জারুল ফোটার কালে, বসন্তের ঝাঁপি খুলে– আসুক পুষ্প–প্লাবন, সবার অন্তরে প্রাণে। এই ফাল্গুন তবু আমার হবে না । কৃষ্ণচূড়ার শাখা যে রক্তে ভেজে, পুষ্টিহীন শিশুর কান্নার মতো যে কোকিলের গান, যে করুণ শূন্যতা ভেসে আসে দক্ষিণে বাতাসে, আমি সেই মুমূর্ষু পৃথিবীকে বুকে নিয়ে আছি– এই…

Read More

রবীন্দ্রনাথ বাঙালি জাতিসত্তার প্রতীক

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলাভাষার অন্যতম শ্রেষ্ঠ কবি এবং বাঙালি জাতির অহংকার। রবীন্দ্রনাথ প্রথমত ও প্রধানত কবি, শিল্পী। জীবন ও জগতের অশেষ রহস্য আর সৌন্দর্যই তাকে বেশি করে টানবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু লৌকিকের চেয়ে অলৌকিকের প্রতি, সীমার চেয়ে অসীমের প্রতি তার আগ্রহের পাল্লাটি ঝুঁকে আছে সারাক্ষণ এ রকম যারা ভাবেন, তাদের কাছে রবীন্দ্রনাথের যে ইমেজ তা ভয়াবহভাবে খন্ডিত। অথচ তাঁর বাস্তবতাবোধ যে কতো সূক্ষ্ম এবং কতোখানি সতর্ক মন নিয়ে তিনি রাজনীতি করেছেন তা তাঁর গদ্য রচনাসমূহের নিবিষ্ট পাঠকরা জানেন। রবীন্দ্রনাথের সাহিত্য-সাধনা সম্পর্কে প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথের সাহিত্য-সাধনা চিরদিনই সাময়িক পত্রিকা আশ্রয় করিয়া…

Read More