কঠিনেরে ভালবাসিলাম

আমার আমি ফিরোজ শ্রাবন

কঠিনেরে ভালবাসিলাম ‘বাজারে যাচাই করে দেখিনি ত দাম/ সোনা কিনিলাম নাকি রূপা কিনিলাম/ ভালবেসেছ বলে ভালবাসিলাম।’ সিনেমার এই গানটি অসম্ভব জনপ্রিয় হয় আর এই গানের হাত ধরে কত প্রেম যে তার সার্থকতা খুঁজে পেয়েছে তার হিসাব মেলানো যে কঠিন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমাদের স্কুল থেকে কলেজ জীবনে এই গানের প্রভাব ছিল ব্যাপক। গানটি কি অর্থ বহন করে বা গানের বার্তা আমরা তখন না বুঝলেও প্রেম করেছি এই জাতীয় গানেরই হাত ধরে। ক্লাসের ভিতরে শিক্ষকদের কঠিন শাসন আর নজরদারি আমাদের  আশাহত করেছে বারংবার।  তবুও যদি ক্লাসের খাতার ভিতরে কোন…

Read More

একুশ এক বিপুল বিস্ময়

একুশ এক বিপুল বিস্ময়

দিগন্ত বিস্তৃত সবুজের সমারোহে ফাগুনের শাখায় যখন ফুটেছে বসন্ত শিমুল পলাশ শহীদের রক্তে লাল মায়ের ভাষার দাবিতে উত্তাল রাজপথ রক্তের ধারায় প্রবাহিত হৃদয়ের ক্ষরণ মিছিলের সারিতে সারিতে ছাত্রের বিদগ্ধ উচ্চারণ! যখন বজ্রমুষ্ঠি স্লোগানে আকাশ প্রকম্পিত– মঞ্চের মালঞ্চে যখন কাঞ্চন উদভ্রান্ত তখন পুলিশের কার্তুজে বড় ভয়ানক গর্জন। ভয় পেয়ো না মা। কে কবে কিছু না চেয়ে পেয়েছে অনন্ত অধিকার? আমরা ছিনিয়ে আনব আমাদের একান্ত    হৃদয়ের ভাষা– আমরা ছিনিয়ে আনবো আমাদের জন্মাবধি মানচিত্র স্বাধীকার– যেভাবে মেঘ থেকে বৃষ্টিকে ছিনিয়ে আনে নির্দ্বিধায়। এবং উঙ্কুরোদগম বৃক্ষ থেকে প্রশাখা। তুমি সাহস দাও সীমান্তের উত্তাল দিগন্তে…

Read More

একুশ আমার অহংকার

মার মুখ থেকে প্রথম পেয়েছি তোমায়।    তুমি আছো আমার ঘুমপাড়ানি গানে আমার শৈশবের রূপকথায় আমার গানে, গল্পে আমার কবিতার পাতায়। তুমি আছো আমার প্রেমে, বিরহে   আমার সকল প্রার্থনায়। আছো আমার দুঃখে, শোকে    আমার সকল ব্যর্থতায়। তুমি আমার সেই অহংকার ভাষার জন্যে কোন জাতি দেয় নি যা আর একুশ তোমায় আমি বড় ভালো বাসি রক্তের আখরে  তুমি যে  বেঁধেছো আমায়

Read More

কংক্রিট নগরে

পাশ্চাত্যের রাত নেমেছে এ কংক্রিটের নগরে উধাও হয়েছে তাই প্রাচ্যের বিন্যাসিত নিসর্গ নক্ষত্রের আলো প্রত্যাখাত বেদনায় ফিরে যায় চন্দ্র মেঘের মায়াবী জোছনা সংগোপনে কাঁদে। মানুষের অসুখে আক্রান্ত হয়েছে অ্যাপার্টমেন্ট কোথাও চিকিৎসা নেই তার, নেই কোন নিদান জঞ্জালের স্তূপে শুধু কিলবিলে ইঁদুরের দৌড় নিহত কৃষ্ণচূড়ায় ঝুলে থাকে সন্তাপিত শোক দীর্ঘশ্বাসের মিছিলে মিশে হরিণীর চিৎকার গন্তব্য তাদের বিনাশী খাদ শ্বাপদ উপত্যকা। শাফাত শফিক

Read More

কুতুপালং থেকে বহেড়াতলায়

কুতুপালং থেকে বহেড়াতলায়

ফিরছি সমুদ্রপাড়- বায়ুসেবী টেকনাফ থেকে। কুতুপালং-উখিয়া শরণার্থীপাড়া- এবার বিদায়। ডাকছে বাংলা একাডেমি বইমেলা, ভাষা-জাগরণ মধু হই হই মধু বই বই… বিনোদন। কি বই খাওয়াইলা ও মেলার মহাজন। ডাকছে বহেড়াতলা, লিটলম্যাগ চত্বর…। স্মৃতিতে কঠিন সেই সত্যাগ্রহ সাময়িকীদিন। যাপিত লিটলম্যাগ গেম, হয়তো প্রথম প্রেম, প্রথম তারুণ্যঘেঁষা ফুটন্ত ফসল- সাহিত্যচেষ্টার করতল, মাঠচষা মফস্বল। ভুলিনি হস্তকম্পোজ, অক্ষরের পরে অক্ষরবসানো খেলা, গ্যালী, তরুণের পাশে প্রথম তরুণী, প্রেম- তার চেয়েও অধিক ছিলো-      যখন লিটলম্যাগ সঁপিলেম! ফিরছি কষ্টপাড়া কুতুপালং থেকে। শরীরে রোহিঙ্গা শরণার্থী গন্ধ। কাহিনি দস্তুর, উদ্বাস্তুর। ফিরছি সুগন্ধি নিতে সদ্যপ্রকাশ সাময়িকীর। জানিনা কাগজ আর কতোদিন! পর্যুদস্ত…

Read More