হুমায়ূন আহমেদের কিছু উক্তি/ রক্তবীজ ডেস্ক

নারীদেরকে সৃষ্টিকর্তা পূর্ণতা দিয়েই পাঠিয়েছেন । শুধু পূর্ণতাই না অতিরিক্ত দিয়ে দিয়েছেন। তাই তো আমরা ‘অপূর্ণ পুরুষ’ পূর্ণ হতে এই নারীদেরই প্রয়োজন হয়. তুমি দশটি সত্য এর মাঝে একটি মিথ্যা মিশিয়ে দাও…সেই মিথ্যাটিও সত্য হয়ে যাবে…কিন্তু তুমি দশটি মিথ্যার মাঝে একটি সত্য মিশাও… সত্য সত্যই থেকে যাবে….সেটি আর মিথ্যা হবে না…সত্য আসলেই সুন্দর… নোংরা কথা শুনতে নিষিদ্ধ আনন্দ আছে, কথা যত নোংরা তত মজা। যাদের জীবনে মজার অংশ কম …তারা অন্যের মজা দেখে আনন্দ পায় …দুধের স্বাদ ভাতের মাড়ে মেটানোর মত. “গার্লফ্রেন্ড বিহীন তরুণের পৃথিবীতে বেঁচে থাকা, ঘাসবিহীন মাঠে গরুর…

Read More

জোসেফিনকে লেখা নেপোলিয়ন চিঠি   

জোসেফিনকে লেখা নেপোলিয়ন চিঠি

বিখ্যাত লোকের প্রেমপত্র/ রক্তবীজ ডেস্ক জোসেফিনকে লেখা নেপোলিয়ন চিঠি      জোসেফিন, আমার জোসেফিন, গতকাল সারাটি বিকেল কাটিয়েছি তোমার পোট্রেটের দিকে চেয়ে থেকেই। কী করে পারো তুমি বলতো এই কঠোর মনের যোদ্ধার চোখেও জল আনতে? আমার হৃদয় যদি একটি পাত্র হয়, তবে সেই পাত্রে ধারণ করা পানীয়ের নাম দুঃখ। তুমি কি তা বোঝো জোসেফিন? আবার কবে তোমার আমার দেখা হবে? সে অপেক্ষার প্রহর যেন শেষ হতেই চায় না! সে অপেক্ষায়…   তোমারই নেপোলিয়ন বোনাপার্ট স্ত্রী ক্লেমিকে লেখা উইনস্টন চার্চিলের প্রেমপত্র আমার প্রিয় ক্লেমি, আমার মন পড়ে রয়েছে মাদ্রাজের ছোট্ট এক টেবিলে,…

Read More

বিয়ে করার কথা

মটকু ভাই

তবে কিসের গন্ধ থাকবে, দাবার?   মটকু ভাই দেরি করে বাসায় ফিরলে জেরা শুরু করল স্ত্রী : কোথায় ছিলে এতক্ষণ? বন্ধুর বাসায়। কী করছিলে? দাবা খেলছিলাম। তাহলে তোমার শরীরে মদের গন্ধ কেন? তবে কিসের গন্ধ থাকবে, দাবার?   মোটামুটি কম খারাপ   ভীষণ সেজেগুজে মটকু ভাইয়ের সামনে গিয়ে দাঁড়াল স্ত্রী। স্ত্রী : দেখো তো, আমাকে কেমন দেখাচ্ছে? মটকু ভাই : মোটামুটি কম খারাপ না!   বিয়ে করার কথা   মটকু ভাই : ও গো শুনছ, একটু পর আমার একজন বন্ধু আসবে। মটকু ভাইয়ের স্ত্রী : গাধা, বোকার হদ্দ কোথাকার, করেছ…

Read More

মনে পড়ে মনে আছে/-মাশহুদা  মাধবী

মনে পড়ে মনে আছে/-মাশহুদা  মাধবী.......

বহুদিন থেকে নেই সেই চাঁদ,/ফুল,পাখী, নদী,/ঘাস,বন,ভোরের শিশির বিন্দু/সব গেছে ঝরে।…. কতযুগ নেই দেখা,/অতি দূর কোন দ্বীপে/পথিক সেই প্রিয়জন। ভুলে গেছে সবকিছু……..। সেই  রূপকথা অতীত সময় /মাধবী কুঞ্জবীথির অচিন দুপুর আর/সেই অপরূপ  ফাল্গুনী দিন/……………………… তবু মাঝেমাঝেই কিযে হয়!/কোন সে স্মৃতি দিনের উতল বাতাস…/চুপিচুপি বলে যায়./……………… .. ভুলিনি কিছুই আজো /মনে আছে সবই সুনিপুণ /মনে পড়ে,মনে আছে/সে কি ভোলা যায়? Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

রবীন্দ্রনাথ/মানসুর মুজাম্মিল

রবীন্দ্রনাথ/মানসুর মুজাম্মিল

তুমি তার পাশে থাকো যে জন্মেছে তোমাকে জাগাতে যার বাড়ি জোড়াসাঁকো জোড়াসাঁকো । তুমি বারবার যার দিকে বাড়াবে হাত সে হলো তোমার প্রিয় রবীন্দ্রনাথ রবীন্দ্রনাথ । তোমার চোখকে ধাঁধিয়ে দেবে তোমার স্বপ্ন শানিয়ে দেবে তোমাকে ভাবাবে দিনরাত ‘সোনারতরী’তে আসবে সে জন রবীন্দ্রনাথ রবীন্দ্রনাথ । ‘যোগাযোগ’ করে চিঠি দেবে তুমি তার ‘ডাকঘর’এ ‘শারদোৎসব’ এ ঠিক যাবে তুমি ধর্ম তোমাকে দেবেনা ভাগ করে । লিখে লিখে তুমি পাড়া করো মাত তোমার কাঁধে হাত দিয়ে তোমাকে সাহস জোগাবে রবীন্দ্রনাথ রবীন্দ্রনাথ । তুমি যে ভাবছো তুমি যে লিখছো সে যে তোমার জাত তোমাকে টেনে…

Read More

আমার আমি ৫/ফিরোজ শ্রাবন

আমার আমি ফিরোজ শ্রাবন

প্রতিদিন রুটিন মতো সব ভাইবোন একসাথে পড়তে বসা আর বিকেল হলে হাত মুখ ধুয়ে হারিকেনের চিমনী ধুয়ে পড়ার টেবিলে বসা অনেক বিরক্তিকর ছিল। আবার জোৎন্সারাতে যখন নিজেকে দেখতাম পড়ার টেবিলে আর বাড়ির অন্যরা উঠানে গল্প আর খেলায় মত্ত তখন নিজেকে বন্দী পাখি মনে হত। তাই শুধু  অপেক্ষা করতাম কখন রাতের খাবারের জন্য ডাক আসবে। রাতের খাবার খেয়ে আবার পড়তে বসলে পড়ার টেবিলেই ঘুম চলে আসত। আর বই বন্ধ করে বসে থাকতাম কখন যেন ঘুমের মধ্যেই বিছানায় চলে যেতাম নিজেও জানতাম না। সকালে ঘুম ভেঙ্গে দেখতাম নিজের বিছানায় আর অবাক হতাম…

Read More

অভিশপ্ত ভালোবাসা/মোঃ শহীদ হোসেন হৃদয়

অভিশপ্ত ভালোবাসা

আজ ৩ দিন হয়ে গেল সুবন্যার সাথে ডিভোর্স হয়েছে হৃদয়ের। কোন যোগাযোগ নেই একজনের সাথে আরেকজনের। দুইজন দুই দিকে। অথচ এই দুইজনই এক সময় উত্তল সঙ্গমে কাটিয়েছে কত শত রাত। ৫ বছর এক সাথে থাকার পর কি যেন মনে হলো, সুবন্যা হৃদয়কে ছেড়ে চলে যায়।   প্রেম করে বিয়ে করেছিলো হৃদয় আর সুবন্যা। শপথ করেছিলো এক সাথে থাকবে দুজন সারাজীবন। এক মেলায় প্রথম দেখে হৃদয় সুবন্যাকে। হৃদয় ঢাকা থেকে গ্রামে আসে ছুটিতে। দেখে ভালো লাগে সুবন্যাকে হৃদয়ের। তারপর  হৃদয় সুবন্যাকে প্রোপোজ করে। গ্রামের মেয়ে সুবন্যা। প্রোপোজে সুবন্যাা রাজি হয়।  …

Read More

গ্রন্থাগার, পাঠ সংকট /মানসুর মুজাম্মিল

গ্রন্থাগার, পাঠ সংকট

শেখার জায়গা হলো বই । জানার জায়গা বই । পাঠাগার জ্ঞানের অন্যতম উৎস । বই কিনে পড়ার মতো অবস্থা সবার থাকে না । আর কটা বই বা কেনা যায় ? কিনে রাখার মতো পরিবেশ কই । মানুষের দু’রকম খাদ্য প্রয়োজন । খাবার যাবে পেটে । বুদ্ধি যাবে মাথায় । আমরা খাবারের পিছে যা খরচ করি তার ১% ও যদি বই কেনার পিছে দিতাম !   কখনো কখনো দেখা যায় পাঠাগার আছে পাঠক নেই । তবে কী ওখানে পাঠারা থাকবে ? পাঠারা কথা বলতে পারে না । উদ্ভাবন করতে জানে না…

Read More

প্রকৃতির সন্তান/হাসনাইন সাজ্জাদী

প্রকৃতির সন্তান

প্রকৃতির সন্তান হারিয়ে যাওয়া ফুল পাখি এলেবেলে মেঠো পথ হেটেছিল শুভক্ষণে আমার সাইত্রিশ বসন্ত। আমি বিয়ের পিড়িতে বঞ্চিত সে নিঝুম রাতে আমার বাসরে। ফুলের মত মেয়েটি কল্পনায় সে আমার আজও ফুটে হুল হয়ে আজো ভালোবাসি। বিলম্বে মা হবার চেষ্টা তার আমি দূর থেকে ফুঁকে দেই গর্ভ প্রকৃতির অলৌকিকত্বে সাফল্য দ্বারপ্রান্তে প্রকৃতি আমার ই। উত্তম পুরুষ ঘড়ির কাটায় ছুঁয়ে যায় সময়ের পরিমাপ জীবনের জলছবি আঁকা জেরস্কপি মেশিনে। মহাকাশ ফেরি করে গ্যাস ভর্তি বেলুনে সাত রঙ ধারাপাত খুঁজে কে বা কারা আনমনে। ধূসর বাতাসের তুলোয় কে উড়ে ট্রাফিক আইল্যান্ডে কার্বনডাইঅক্সাইড ঝড়ে শিশায়…

Read More