কোথায় গেলো সিনেমার জোয়ার?

কোথায় গেলো সিনেমার জোয়ার?

জোয়ারের পর আসে ভাটা আর ভাটার পরেই-জোয়ার। এইতো প্রকৃতির নিয়ম। সিনেমার জগতেও তাই হওয়ার কথা। একদিন জোয়ার ছিলো, ব্যাপক জোয়ার ছিলো সিনেমা জগতে। ব্যাপক জোয়ারে ছবিঘরের সামনে উপচে পড়তো দর্শকের  ঢল। ঈদে-পূজোয় নতুন ছবি মুক্তি উপলক্ষে টিকিট কাউন্টারে দীর্ঘ লাইন যেনো জনতার ঢল নামতো। সিনেমার জোয়ারের সেই যুগে ছবিঘরে মাসের পর মাস এক ছবি চলতো, তবুও সর্ব শ্রেণীর দর্শকের ভিড় সামাল দেয়া সম্ভব হতো না। এমনকি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকেও এ জন্য হিমশিম খেতে হতো। এদিকে তখনকার দিনে সিনেমা হলের সামনে ঢাক-ঢোল বাদ্যের তালে তালে থাকতো নৃত্য, এরই সঙ্গে মাইকে বাজানো…

Read More

বার্মা থেকে মিয়ানমার

হাজার হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা, কয়েক লক্ষ রোহিঙ্গাকে দেশত্যাগে বাধ্য করার পরে ইদানিং মিয়ানমার সরকার বলছে, ‘আমরা শান্তির প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা সব মানুষের দুর্ভোগ গভীরভাবে অনুভব করি। রাখাইনে শান্তি, স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারে  কাজ করছি। রাখাইন থেকে রোহিঙ্গারা কেন পালিয়ে বাংলাদেশে যাচ্ছে, তা খুঁজে বের করতে চাই—–’। আমরা বলবো, এই বক্তব্য মিয়ানমার সরকারের একটা নতুন নাটক, একটা ফন্দিবাজী, নতুন ধাপ্পাবাজি। হাজার হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা, লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করার বিষয়টি ধামাচাপা দিয়ে বিশ্ববাসীকে এখন বোকা বানাতে চাইছে মিয়ানমার। রোহিঙ্গাদেরকে ফেরত না নেয়ার আরেক কৌশলের ফন্দী এটেছে এবার অং সান সূ চি।…

Read More

আমি চাঁদ নহি চাঁদ নহি অভিশাপ

আমি চাঁদ নহি চাঁদ নহি অভিশাপ

এ বছরের ৭ আগষ্ট চন্দ্রগ্রহণ। চন্দ্রগ্রহণের সময় দেখা মিলবে ‘চাঁদ’কে। চন্দ্রগ্রহণের স্থিতিকাল হবে ১ ঘন্টা ৫৭ মিনিট। অর্থাৎ ৭ আগষ্ট রাত ১১টা ২২ মিনিটে চন্দ্রগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হবে ৮ আগস্ট রাত ১টা ১৯ মিনিটে। চাঁদ গ্রাস হওয়া দেখতে দেখতে ভাবনায় দেখা দিবে শুধুই চাঁদ। রাতের ঘন অন্ধকার দূর হয় চাঁদ উঠলে, পূর্ণিমার দিনে চাঁদের শান্ত সিন্ধ আলোয় পৃথিবী প্লাবিত হয়। এসব দেখে নাকি আদিম মানুষ ভয়ে-বিস্ময়ে চাঁদকে দেবতা বলে ভাবতে শুরু করে। পৃথিবীর সমস্ত প্রাচীন সভ্যতায় চাঁদের বন্দনা-গান গাওয়া শুরু হয়। ইংরাজী Month (বাংলায় মাস) শব্দটি এসেছে চাঁদের ইংরেজি প্রতি…

Read More

বাঙ্লায় বারোমাসি ভ্রমণ

বাঙ্লায় বারোমাসি ভ্রমণ

(শেষাংশ) পৌষ এলো গো……. ‘পৌষ’ এলে শুরু হয় শীতকাল। ‘পৌষ’কে অতি আদর সহকারে কাজী নজরুল ইসলাম ‘পউষ’ কবিতায় লিখেছেন -“পউষ এলো গো/পউষ এলো অশ্রু-পাথার হিম-পারাবার পারায়ে/ঐ যে এলো গো ……….. পউষ এলো গো/এক বছরের শ্রান্তি পথের, কালের আয়ু ক্ষয়/পাকা ধানের বিদায়-ঋতু, নতুন আসার ভয়…….”। পৌষ নিয়ে তিনি আরো লিখেছেন-“পউষের বেলা শেষ/পরি জাফ্রানি বেশ/মরা মাচানের দেশ/ক’রে তোল মশগুল/ঝিঙে ফুল’। প্রকৃতির কবি জীবনানন্দ দাশ-এর ‘অন্ধকার’ কবিতায় রয়েছে-‘ধানসিড়ি নদীর কিনারে আমি শুয়েছিলাম-পউষের রাতে’ ; ‘মৃত্যুর আগে’ কবিতায় আছে- ‘বুঝেছি শীতের রাত অপরূপ, মাঠে-মাঠে ডানা ভাসাবার/গভীর আহ্লাদে ভরা, অশ্বত্থের ডালে-ডালে ডাকিয়াছে বক….’। পৌষ শীতের…

Read More

বাঙ্লায় বারোমাসি ভ্রমণ

বাঙ্লায় বারোমাসি ভ্রমণ

(পূর্ব প্রকাশিতর পর) আঁচল দোলায় আশ্বিন হাওয়ায় আশ্বিনেই গ্রাম বাংলার নববধুরা জলপথে নৌকোয় ফেরেন বাবার বাড়ি। এটাই চিরন্তন নিয়ম। শারদীয়া দুর্গা পুজোয় সরব হয়ে ওঠে গোটা বাংলাদেশ। হিন্দুদের এই বড় উৎসবে মুসলমানরাও আনন্দে জড়িয়ে পড়ে। কেনইবা পড়বে না, ধর্ম যার যার উৎসব যে সবার। আশ্বিন এলে মনের কোনে উঁকি দিবেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা- “কোন খেপা শ্রাবণ ছুটে এল আশ্বিনেরই আঙ্গিনায়” কবিতার এই লাইনটি। এই আশ্বিন মানেইতো শরৎকাল। বহু বছর আগে ‘পরিচয়’ ছবিতে শরৎকালের দৃশ্য তুলে ধরা হয়েছিল। রোদ ছায়ার লুকোচুরির খেলা চলছে, নীল আকাশে মাঝে মধ্যে দেখা মেলে সাদা…

Read More

বাঙলায় বারোমাসি ভ্রমণ

বাঙলায় বারোমাসি ভ্রমণ

বৈশাখের রূপঃ বাল্য স্মৃতি…… বৈশাখের প্রচন্ড গরমে তখনও জ্বালা ধরছে। স্কুল ছুটির সময়, ১১-র ক্লাস। পাঁচটার বেলায় দুটো সাইকেল ঘন্টি পাড়ত জুড়ন দিতে। সে সময়টায় ফুটবল মাঠ পড়ে থাকে রোজের মতন। অফুরান ফসলের জমি, তার আলপথ-আবরণ নেই কোনও। পথে আছে একটা ভাগাড়-বড়ো,গভীর একটা দিঘি, জলহীন। চারদিক জনহীন। প্যাডেলে চাপ অবিরাম। মাটি তোলা লরির চাকার দাগ ধরে চললেই রাজারহাটের পোল। তার কোণে খিরিশ গাছ  পেল্লাই। একটু দূরেই খালের জল সেঁচা মেশিন ঘর-ফাঁকা। মাথায় তালপাতার ছাউনি । দেড় মাইল দূরে গেলেই পিরোজপুরের রায়েরকাঠি।এখানে খানিক পেরোলে একটা দেউল, মন্দিরে পুরোনো রাধা -গোবিন্দ। তার…

Read More