জ্বলে ভিসুভিয়াসের আগুন/ ড. নিগার চৌধুরী ( হলি আর্টিজনের ঘটনা স্মরণে)

অতিথি আপ্যায়নের ঐতিহ্যের বরণ ডালায় ভালবাসার সরোবরে, বিষাক্ত সরিসৃপের ছোবল যুথী কামিনী রজনীগন্ধার শ্রভ্রবসনে জবা কৃষ্ণচূড়া পলাশের রঙের ঝলক। আমার দুহাত ভরা গুচ্ছ গুচ্ছ কদম ফুলের শরীর গড়িয়ে গড়িয়ে, তির তির করে ঝরছে উষ্ণ রক্ত। নির্ঘুম রাত কষ্টে কষ্টে দিশাহারা কালিদাসের ভ্রমণ বিলাসী পূর্ব মেঘ, উত্তর মেঘ বিভ্রান্ত; থেমে আছে গুলশানের ঊনাশি নম্বর সড়কে- স্তম্ভিত, তাকিয়ে আছে ‘হলি আর্টিজান’ নামের চির বিরহের, চির বিচ্ছেদের শোক মহলে। রাতদিন চলছে দুঃখের   নৈবেদ্য নিবেদন লজ্জায় ঘৃণায় মুখ ঢাকে অসহায় প্রিয় স্বদেশ- আমার বুকে দাউ দাউ জ্বলে বিসুভিয়াসের আগুন। ড. নিগার চৌধুরী Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

মহীরুহ তোমার দৃঢ় ঘোষণায়/ ড. নিগার চৌধুরী

দু’চোখের তারায় বঙ্গোপসাগরের দ্রোহের বিস্তার হৃদয় জুড়ে আকাশের  অসীমতা যার দিগন্ত রেখা চোখে পড়ে না। বিসুভিয়াসের উত্তপ্ত অগ্নিলাভার মতো নির্গত বাক্যে বাক্যে প্রতিপক্ষের বাংকার ব্যারিকেট ভেঙ্গে চুরমার তর্জনি উঁচিয়ে উচ্চারিত নির্দেশ যখন বজ্র হয়ে যায় মানবো না বলে এমন সাধ্যি, স্পর্ধা আছে কার। হিমালয় সম, অনঢ় নিশ্চল দাঁড়িয়ে থাকা সেই মহামানবের দৃঢ় ঘোষণা ‘আমি দুখি মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চাই।’ মুহূর্তে সুখ উবে যায় সুখি মানুষগুলোর অতি তৎপর ওরা বসে থাকে না। বুলেটে বুলেটে ক্ষতবিক্ষত হয়ে দুখি মানুষের স্বপ্ন। পদ্মা মেঘনা যমুনার রক্তাক্ত জলে সেই থেকে সুখি মানুষগুলো সাঁতার কাটার…

Read More