বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সনদপ্রাপ্তি এবং দু’টি প্রাসঙ্গিক কথা

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল

বর্তমান দুনিয়ায় আইন পেশা নানাবিধ কারণে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই পেশা গ্রহণের জন্য সকল দেশেই একটি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে প্রার্থীকে তার যোগ্যতা যাচাইয়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হয়। আইনজীবি হওয়ার ক্ষেত্রে যোগ্যতা নির্ধারণ ও যাচাই, ফি নির্ধারণ ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরণের বিধি-বিধান করা হয়েছে এবং হচ্ছে। প্রাচীন গ্রীকে পক্ষগণের স্ব স্ব মামলা উপস্থাপনের বিধান ছিল। প্রাচীন রোমে খ্রীস্টপূর্ব ২০৪ শতকে আইনজীবিদের ফি গ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়। আইন পেশায় অনুমতি দেয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের বিধি-বিধান প্রণীত হলেও এই পেশা গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রাচীন যুগ থেকে অদ্যাবধি পৃথিবীর কোন দেশে বয়সের…

Read More

১৯৮৫ সালের মুসলিম পারিবারিক আইন

ballobibaho

এই আইনে কলা হয়েছে , স্বামী যদি স্ত্রীর বর্তমানে পুনরায় বিবাহ করতে চান তবে তাকে অবশ্যই তাকে স্ত্রীর পূর্বানুমতি নিতে হবে।  বাংলাদেশের মুসলিম পারিবারিক আইনে নারীকে বিবাহ ও বিবাহ বিচ্ছেদের অধিকার দিয়েছে, যা নারীর অধিকারকে আরও সুসংহত করেছে। শুধু তাই নয়, বিবাহ বিচ্ছেদ কালে নারীর অধিকারকে ও সুনিশ্চিত করেছে। তাই বহু বিবাহের ক্ষেত্রে স্বামীকে অবশ্যই স্ত্রীর অনুমতি বা সম্মতি প্রহণকেও বাধ্যতামূলক করেছে। সভ্যতার  অগ্রযাত্রায় , সমাজ উন্নয়ন, রাষ্ট্রের উন্নতি তথা পরিবারের সর্বক্ষেত্রে নারীর ভূমিকা অগ্রগণ্য। অাজকের নারী শুধু নারী নয়, সে মা, স্ত্রী, ভগ্নী, বৈমানিক, আইনজীবি, শিক্ষক, চিকিৎসক ও রাষ্ট্রের…

Read More

বাল্যবিবাহ

সমাজের সুষ্ঠ বিকাশে এবং সমৃদ্ধির ক্ষেত্রে বিবাহ প্রথার ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। কারণ বিবাহ ছাড়া পরিবার গড়ে ওঠে না , আর পরিবার গড়ে না উঠলে সমাজ সৃষ্টি হয় না । তাই একটি সুশৃঙ্খল পরিবার ও সামাজিক জীবনের পূর্বশর্ত হচ্ছে বিবাহ । কিন্তু নারী পুরুষের জীবনের বিবাহের একটি নির্দিষ্ট সময়কাল থাকে। এই নির্দিষ্ট বয়স কালের মধ্যে নারী পুরুষের বিবাহ হলে পারিবারিক ও সামাজিক কল্যাণ সাধিত হয় । আর অপরিনত বা বাল্য বয়সে বিবাহ হলে তাতে পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে দাড়ায়। এধরণের বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে ১৯২৯ সালে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন প্রবর্তিত হয়।…

Read More

বাল্যবিবাহ

সমাজের সুষ্ঠ বিকাশে এবং সমৃদ্ধির ক্ষেত্রে বিবাহ প্রথার ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। কারণ বিবাহ ছাড়া পরিবার গড়ে ওঠে না , আর পরিবার গড়ে না উঠলে সমাজ সৃষ্টি হয় না । তাই একটি সুশৃঙ্খল পরিবার ও সামাজিক জীবনের পূর্বশর্ত বিবাহ । কিন্তু নারী পুরুষের জীবনে বিবাহের একটি নির্দিষ্ট সময়কাল থাকে। এই নির্দিষ্ট বয়সকালের মধ্যে  বিবাহ হলে পারিবারিক ও সামাজিক কল্যাণ সাধিত হয় । আর অপরিণত বা বাল্য বয়সে বিবাহ হলে তাতে পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে দাঁড়ায়। এধরণের বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে ১৯২৯ সালে ‘বাল্য বিবাহ নিরোধ’ আইন প্রবর্তিত হয়।   এখন প্রশ্ন আসতে…

Read More