প্রেমের অনুভুতি

প্রেমের অনুভুতি

তোমার প্রেমের জন্য আজ হয়েছি বড়ই কাতর, কাছে এসে দাও না আমায় একটু প্রেমের আদর। এক পলকের একটু দেখায় ফেঁসেছি গো তোমার প্রেমে, তোমার ছবিটাই টাঙানো আছে আমার হৃদয় ফ্রেমে। এদি, সেদি, যেদিক তাকাই দেখি তোমারই মুখ, তোমার মুখেতেই খুঁজে বেড়াই আমার আপন সুখ। ওই মুখ খানি তোমার কী যে মায়াভরা; নধর অধর রে তোমার যেন হৃদয়হরা। তোমার প্রসঙ্গে বলতে গেলেই ফুরায় মনের কথা, হৃদকম্পন যায় রে বেড়ে, বাড়ে ব্যাকুলতা। তোমার প্রেমেরই পুজারী আমি, তোমাকেই খুঁজি ফিরি, তোমার চোখেতেই খুঁজে বেড়াই প্রেমস্বর্গের সিঁড়ি।

Read More

একাত্তুরের গল্প

একাত্তুরের গল্প

যে যত পার, একাত্তুরের গল্প বল। রক্তে ভেজা, তাঁজা গল্প । কঠিন দিনের গল্প যুদ্ধের গল্প । গর্বের গল্প, সাহসের গল্প অহংকারের গল্প । গল্প বল দিন বদলের। তোমাদের সব সত্য গল্প রেখে যাও প্রজন্মের হাতে । প্রজন্মের বোঁধকে খুঁচিয়ে রক্তাক্ত কর- গল্প বল আমার নিরীহ মাকে ধর্ষনের । গল্প বল নির্ঘুম রাতের । গল্প বল আমার পূর্বপুরুষের বুকে বেয়নেটের আঘাতের । গল্প বল সেই ১৬ই ডিসেম্বরের যেদিন সন্তান যুদ্ধে শহীদ হয়েছে শুনেও মায়ের চোখে ছিল অশ্রু সম্মানের । আর নয় ঘুম পাড়ানি গান প্রজন্মকে জাগিয়ে রাখ গল্প বল একাত্তুরের…

Read More

আমার বিজয়

আমার বিজয়

এই নাও মা সবুজ শাড়ি টিপ এনেছি লাল। মনে করে পোড়ো মাগো বিজয় দিবস কাল। বিজয় দিবস রোজই আমার বুকের ভেতর ওরে। সুর,অসুরের দড়ির সে টান ভুলবো কেমন করে? আমার সে টিপ উড়ে গিয়ে সেদিন ছিটকে গিয়ে দড়ির টানেই সেঁটে গেছে পতাকার ওই গায়ে। সেই থেকে ওই লাল টিপ টা পতাকার ওই বুকে। সাক্ষী হয়ে  পতাকাতেই আছে পরম সুখে।    

Read More

অভিবাসীর গান

অভিবাসীর গান

হে জননী, বিষুবরেখায় হেলান দিয়ে চোখ মেলে দেখো- নদীর মতো বয়ে চলেছি আমি কাঁধে নিয়ে নিরন্তর কর্মপ্রবাহের জল আমার সাথে আছো তুমিও যতদূর গঙ্গা, ততোদূর গঙ্গাঋদ্ধি যতদূর উড়ি আমি, ততোদূর বিস্তৃত হও তুমিও। আলেকজান্ডার যা পারেনি যা পারেনি সুলতান সুলেমান কিংবা রানী ভিক্টোরিয়া, আমি তাই করে চলেছি এখন কোনো মহাদেশেই আর অনুপস্থিত নও তুমি। আর দ্যাখো, তোমার মুখের জবানকে হাওয়ার মতো ছড়িয়ে দিয়েছি আমি পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত! কান পাতো মেরু হাওয়ায়– উত্তরে, দক্ষিণে কান পাতো আটলান্টিকে- ঢেউয়ের গর্জনে, ঈগলের শিসে, শুনতে পাবে আপন কন্ঠস্বর; আমি যেন সোলেমানী…

Read More

হাসনাইন সাজ্জাদীর দুটি কবিতা

হাসনাইন সাজ্জাদীর দুটি কবিতা

কবিতা তুমি সূদীর্ঘ দেহ কবিতার দ্রুত নড়ে ওঠা চোখে আলো রশ্মি আলোক বর্ষের ঠোটে মায়াবী চুমু ওম। হৃদয় অনুরণ আলো কিরণ মুখটা সুখ ঝিলিক সুগভীর নাভিমূলে মায়াজালের টেলিস্কোপ না প্রেমের লোভাতুর অনল? কুসুমাস্তীর্ণ রাজপথ ভাবিনা তুমি ট্রাফিক আইল্যান্ডের বাতিঘর সবুজ বাতি লাল বাতি ভালবাসা বিজয় পতাকা তুমি। তুমি বাণী তুমি ভাষা কবিতা দীর্ঘ সাধনার বলপেনের আঁকিবুঁকিতে কবিতা তুমি ভাবনায়। প্রেম কাব্য কতদিন পর এলে আমার চোখের আলো হয়ে কতদিন পর আমাকেই দেখা দিলে যমদূত প্রেম। আমি তো খুঁজেছি স্বপ্নালু তোমাকে পথ প্রান্তর নদী, খাল-বিল, পাহাড়-পর্বত শ্রাবন্তীর কারুকাজে তুলির আঁচড়ে তুমি…

Read More

জীবন কেনো এমন হলো

জীবন কেনো এমন  হলো? এই জীবনের জন্যে আমি সবটুকুই কি দায়ী বলো? শিশুকালে স্বপ্নে দেখা সেই জীবন কি পাবো সখা? কে হবে আর সেই দরদি, বুকের কাছে তিতাস নদী ভালোবেসে ফিরিয়ে দেবে? — এই যে জীবন যাপন করি অন্ধকারে হাতড়ে ফিরি কী খুঁজি বা কাকে রাজি করতে সদাই প্রদীপ জ্বালাই খুব গভীরে মনের বালাই দূর করা তাই আর হলোনা, নিজের কাছেই নিজের জীবন খুব অচেনা লাগছে এখন! — রূপকথার এক রাজ্য ছিলো কী সুন্দর সে বাল্যকালে, রাজকুমারের মতো আমার কাটতো জীবন হেলেদুলে। আকাশের ঐ চাঁদটি যেন নেমে আসতো দোরের কাছে,…

Read More

বসবাসে আনাড়ি

বসবাসে আনাড়ি

পাহাড়ে লুকায় মানবের পদচ্ছাপ। যে মানুষ ছলনা জানে না একাকীত্বে খুঁজে ফেরে বংশ বিস্তারের নিম্নচাপ। পাহাড়ে লঘুচাপ লুকিয়ে থাকে। তুমি বর্ণনায় কাঁচা তাই সাগর দর্শনও তোমাকে পায় না তার মতো করে বিরুদ্ধ বাতাসে বসবাস করে এতো বেয়াড়া হয়েছো যে জীবনের স্বাদ মানুষ যেভাবে নেয় তুমি তার বিপ্রতীপে থেকে যাও। বসবাসে এমন আনাড়ি ঝুলে থাকো শূন্যে তুমি। সেলিম মাহমুদ  

Read More