একুশ এক বিপুল বিস্ময়

একুশ এক বিপুল বিস্ময়

দিগন্ত বিস্তৃত সবুজের সমারোহে ফাগুনের শাখায় যখন ফুটেছে বসন্ত শিমুল পলাশ শহীদের রক্তে লাল মায়ের ভাষার দাবিতে উত্তাল রাজপথ রক্তের ধারায় প্রবাহিত হৃদয়ের ক্ষরণ মিছিলের সারিতে সারিতে ছাত্রের বিদগ্ধ উচ্চারণ! যখন বজ্রমুষ্ঠি স্লোগানে আকাশ প্রকম্পিত– মঞ্চের মালঞ্চে যখন কাঞ্চন উদভ্রান্ত তখন পুলিশের কার্তুজে বড় ভয়ানক গর্জন। ভয় পেয়ো না মা। কে কবে কিছু না চেয়ে পেয়েছে অনন্ত অধিকার? আমরা ছিনিয়ে আনব আমাদের একান্ত    হৃদয়ের ভাষা– আমরা ছিনিয়ে আনবো আমাদের জন্মাবধি মানচিত্র স্বাধীকার– যেভাবে মেঘ থেকে বৃষ্টিকে ছিনিয়ে আনে নির্দ্বিধায়। এবং উঙ্কুরোদগম বৃক্ষ থেকে প্রশাখা। তুমি সাহস দাও সীমান্তের উত্তাল দিগন্তে…

Read More

একুশ আমার অহংকার

মার মুখ থেকে প্রথম পেয়েছি তোমায়।    তুমি আছো আমার ঘুমপাড়ানি গানে আমার শৈশবের রূপকথায় আমার গানে, গল্পে আমার কবিতার পাতায়। তুমি আছো আমার প্রেমে, বিরহে   আমার সকল প্রার্থনায়। আছো আমার দুঃখে, শোকে    আমার সকল ব্যর্থতায়। তুমি আমার সেই অহংকার ভাষার জন্যে কোন জাতি দেয় নি যা আর একুশ তোমায় আমি বড় ভালো বাসি রক্তের আখরে  তুমি যে  বেঁধেছো আমায়

Read More

কংক্রিট নগরে

পাশ্চাত্যের রাত নেমেছে এ কংক্রিটের নগরে উধাও হয়েছে তাই প্রাচ্যের বিন্যাসিত নিসর্গ নক্ষত্রের আলো প্রত্যাখাত বেদনায় ফিরে যায় চন্দ্র মেঘের মায়াবী জোছনা সংগোপনে কাঁদে। মানুষের অসুখে আক্রান্ত হয়েছে অ্যাপার্টমেন্ট কোথাও চিকিৎসা নেই তার, নেই কোন নিদান জঞ্জালের স্তূপে শুধু কিলবিলে ইঁদুরের দৌড় নিহত কৃষ্ণচূড়ায় ঝুলে থাকে সন্তাপিত শোক দীর্ঘশ্বাসের মিছিলে মিশে হরিণীর চিৎকার গন্তব্য তাদের বিনাশী খাদ শ্বাপদ উপত্যকা। শাফাত শফিক

Read More

কুতুপালং থেকে বহেড়াতলায়

কুতুপালং থেকে বহেড়াতলায়

ফিরছি সমুদ্রপাড়- বায়ুসেবী টেকনাফ থেকে। কুতুপালং-উখিয়া শরণার্থীপাড়া- এবার বিদায়। ডাকছে বাংলা একাডেমি বইমেলা, ভাষা-জাগরণ মধু হই হই মধু বই বই… বিনোদন। কি বই খাওয়াইলা ও মেলার মহাজন। ডাকছে বহেড়াতলা, লিটলম্যাগ চত্বর…। স্মৃতিতে কঠিন সেই সত্যাগ্রহ সাময়িকীদিন। যাপিত লিটলম্যাগ গেম, হয়তো প্রথম প্রেম, প্রথম তারুণ্যঘেঁষা ফুটন্ত ফসল- সাহিত্যচেষ্টার করতল, মাঠচষা মফস্বল। ভুলিনি হস্তকম্পোজ, অক্ষরের পরে অক্ষরবসানো খেলা, গ্যালী, তরুণের পাশে প্রথম তরুণী, প্রেম- তার চেয়েও অধিক ছিলো-      যখন লিটলম্যাগ সঁপিলেম! ফিরছি কষ্টপাড়া কুতুপালং থেকে। শরীরে রোহিঙ্গা শরণার্থী গন্ধ। কাহিনি দস্তুর, উদ্বাস্তুর। ফিরছি সুগন্ধি নিতে সদ্যপ্রকাশ সাময়িকীর। জানিনা কাগজ আর কতোদিন! পর্যুদস্ত…

Read More

ভাষা অবমাননায় যাপিত জীবন

ভাষা অবমাননায় যাপিত জীবন সাঈফ ফাতেউর রহমান

নিজের সাথে নিজে প্রতারণা করে চলেছি অবিরাম। মাতৃভাষার জন্য নিবেদিত আমি বহিরঙ্গে অন্তরঙ্গে হৃদয় নিবিড়ে সোচ্চার উচ্চারণে প্রগলভতায় যতোই নিনাদিত করি চারদিক, নিজেই নির্ভুল জানি, মাতৃভাষাকে আমি হৃদয়ে লালন করিনা, পালন করিনা শুদ্ধাচারে সুমার্জিত প্রভায়, ধারণ করিনা ব্যক্তি জীবনের প্রাত্যহিকতার, জীবনাচারের সকল সরল ও বঙ্কিম পথরেখা বা অনুক্রমে। কেবলই প্রদর্শনাচার আমাদেরকে ঘিরে থাকে কেবলই আনুষ্ঠানিকতায় আবৃত থাকি আমরা আমূল কেবলই বাক-সর্বস্বতা, কেবলই সাময়িকতার বৃত্তে আঁটকে থাকি স্বেচ্ছায় কেবলই আমরা দিবস বা মাসের ঘেরাটোপে আবদ্ধ করে রাখি একুশে চেতনা শুদ্ধতায় শিষ্টতায় অনুরাগে সারল্যের শুভ্রতায় ধারণ লালন করিনা মাতৃভাষাকে বন্দী-মাতৃভাষা দিবস-কারাগারের অন্তরালে…

Read More

একুশের কবিতা

একুশের কবিতা

 ফেব্রুয়ারির একুশ তারিখ দুপুর বেলার অক্ত বৃষ্টি নামে, বৃষ্টি কোথায় ? বরকতের রক্ত। হাজার যুগের সূর্যতাপে জ্বলবে এমন লাল যে, সেই লোহিতেই লাল হয়েছে কৃষ্ণচূড়ার ডাল যে ! প্রভাতফেরীর মিছিল যাবে ছড়াও ফুলের বন্যা বিষাদগীতি গাইছে পথে তিতুমীরের কন্যা। চিনতে না কি সোনার ছেলে ক্ষুদিরামকে চিনতে ? রুদ্ধশ্বাসে প্রাণ দিলো যে মুক্ত বাতাস কিনতে ? পাহাড়তলীর মরণ চূড়ায় ঝাঁপ দিল যে অগ্নি, ফেব্রুয়ারির শোকের বসন পরলো তারই ভগ্নী। প্রভাতফেরী, প্রভাতফেরী আমায় নেবে সঙ্গে, বাংলা আমার বচন, আমি জন্মেছি এই বঙ্গে। আল মাহমুদ

Read More

বেপরোয়া কাব্য

শীতের ঝিরঝির বাতাসে

মৃদুমন্দা বাতাস কখনো আমাকে বলেনি চুমু দীর্ঘ হবে মিলন মেলার। শীতের ঝিরঝির বাতাসে কাঁপেনি প্রিয়ার ঠোঁট চুমুতে ছিল আমার সাত রঙের উষ্ণতা। রাখালিয়া বাঁশি সুমধুর ঝরনার জলকেলি সুর মাঝরাতে শিৎকার কোনটাই পর নয়। আমি উষ্ণ মেলার পথিক শীত কী বসন্তকাল দুপুর কি রাত তাতে আমার কি আসে যায়।  

Read More

মনে পড়ে মনে আছে

বহুদিন থেকে নেই সেই চাঁদ, ফুল,পাখী, নদী, ঘাস,বন, ভোরের শিশির বিন্দু গেছে ঝরে। কত যুগ দেখা নেই অতি দূর কোন দ্বীপের পথিক ভুলে গেছে সবকিছু……..। সেই  রূপকথা অতীত সময় মাধবী কুঞ্জবীথির অচিন দুপুর আর সেই অপরূপ ফাল্গুনী দিন তবু মাঝে মাঝে কিযে হয়! স্মৃতি দিনের উতল বাতাস, চুপিচুপি বলে যায় ভুলিনি কিছুই। মনে পড়ে,মনে আছে, ভুলিনি কিছুই আজো সে কি ভোলা যায়?

Read More

প্রেমের অনুভুতি

প্রেমের অনুভুতি

তোমার প্রেমের জন্য আজ হয়েছি বড়ই কাতর, কাছে এসে দাও না আমায় একটু প্রেমের আদর। এক পলকের একটু দেখায় ফেঁসেছি গো তোমার প্রেমে, তোমার ছবিটাই টাঙানো আছে আমার হৃদয় ফ্রেমে। এদি, সেদি, যেদিক তাকাই দেখি তোমারই মুখ, তোমার মুখেতেই খুঁজে বেড়াই আমার আপন সুখ। ওই মুখ খানি তোমার কী যে মায়াভরা; নধর অধর রে তোমার যেন হৃদয়হরা। তোমার প্রসঙ্গে বলতে গেলেই ফুরায় মনের কথা, হৃদকম্পন যায় রে বেড়ে, বাড়ে ব্যাকুলতা। তোমার প্রেমেরই পুজারী আমি, তোমাকেই খুঁজি ফিরি, তোমার চোখেতেই খুঁজে বেড়াই প্রেমস্বর্গের সিঁড়ি।

Read More

একাত্তুরের গল্প

একাত্তুরের গল্প

যে যত পার, একাত্তুরের গল্প বল। রক্তে ভেজা, তাঁজা গল্প । কঠিন দিনের গল্প যুদ্ধের গল্প । গর্বের গল্প, সাহসের গল্প অহংকারের গল্প । গল্প বল দিন বদলের। তোমাদের সব সত্য গল্প রেখে যাও প্রজন্মের হাতে । প্রজন্মের বোঁধকে খুঁচিয়ে রক্তাক্ত কর- গল্প বল আমার নিরীহ মাকে ধর্ষনের । গল্প বল নির্ঘুম রাতের । গল্প বল আমার পূর্বপুরুষের বুকে বেয়নেটের আঘাতের । গল্প বল সেই ১৬ই ডিসেম্বরের যেদিন সন্তান যুদ্ধে শহীদ হয়েছে শুনেও মায়ের চোখে ছিল অশ্রু সম্মানের । আর নয় ঘুম পাড়ানি গান প্রজন্মকে জাগিয়ে রাখ গল্প বল একাত্তুরের…

Read More