চেতনার প্রতীক একুশ

বাংলাদেশ প্রকৃতিগতভাবেই প্রতিবাদী। অন্যকে নিজ ভূমির উপর স্থান দিয়ে তারই গোলামি করা সে কখনোই মেনে নিতে পারেনি। তাই বারবার এই সবুজ-শ্যামল- সরল প্রকৃতির বাংলাদেশে দাউ দাউ করে জ্বলে উঠেছে বিদ্রোহের অগ্নিশিখা। যে শিখায় এদেশের তরুণ ছেলেদের শৌর্য-বীর্য দীপ্ত হয়ে ওঠে। দেহের প্রতিটি স্তরে প্রবাহিত হতে থাকে উষ্ণ রক্ত আর সঞ্চারিত হতে থাকে মুক্তির আনন্দগীতি। এই তরুণেরা আর কেউ নয়, এরা অতি সাধারণ বাংলা মায়ের বাংলার প্রকৃতিতে বেড়ে ওঠা বাঙাঙি সন্তান। আজ একুশে ফেব্রুয়ারি। ক্যালেন্ডারে চোখ রাখতেই গা নাড়া দিয়ে ওঠে। মনে পড়ে যায় সেই ৬৫ বছর আগের কথা। যেদিন বাংলা মায়ের ছেলেরা তাঁর নিজ মাতৃভাষার জন্য বুকের তাজা খুন ঢেলে দিয়েছিল এদেশের রাজপথে। এদেশের অলিতে গলিতে প্রত্যেকটা স্থানে ফুল হয়ে ঝরেছিল রক্তের বন্যা। সেদিন আকাশ বাতাস বন্ধ করে দিয়েছিল তাদের পথ চলা। স্তব্ধ হয়ে দেখছিল সেই করুণ দৃশ্য। বাতাসের সাথে ভেসে আসছিল

একটি প্রশ্ন, ‘এদেশের কোমল মাটি এতগুলো সন্তানের রক্তের বোঝা বইতে পারবে তো?
এই রক্ত সমুদ্র যে পৃথিবী কোনো কালে কোনো যুদ্ধে দেখেনি! এই রক্তের বিনিময়ে বঙালি অর্জন করেছে তার হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সম্পদ, প্রাণের চেয়েও প্রিয় মাতৃভাষা।স্বাধীনতার নতুন প্রভাত এসেছে এই রক্তের বিনিময়েই।সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে যুগেরও পরিবর্তন ঘটে। গড়ে ওঠে নিত্য নতুন কাহিনি ও ইতিহাস। প্রবাহমান কালের সাথে সাথে মুছে যায় অনেক কিছুই। কিন্তু বাঙালি তরুণদের এই আত্মত্যাগের কথা পৃথিবী কখনো ভুলবে না। তাই তাঁদের স্মরণে প্রতিবছর পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। নদীর কুল ভাঙ্গে, সেই সাথে ভাসিয়ে নিয়ে যায় অনেক কিছুই। আবার গড়ে ওঠে নতুন চর। সেই চর ইঙ্গিত বয়ে আনে নতুন ফসল উৎপাদনের। তেমনি ৫২এর ভাষা আন্দোলনের রক্তের উত্তাল স্রোত শত শত মায়ের বুক খালি করে ভাসিয়ে নিয়ে যায় এদেশের তরুণ সন্তানদের তাজা প্রাণকে। আবার সেই স্রোতই বাঙালির মনে জাগিয়ে তোলে নতুন উদ্দীপনা। সালাম,রফিক, বরকতদের মতো হাজারো বীর শহীদদের আত্মত্যাগের অমিত শক্তির চেতনা। এই শক্তি এদেশের নতুন প্রজন্মকে ঐক্যবদ্ধ হতে শিক্ষা দেয়। নিজেদের চিত্তকে চিরদিন জাগিয়ে রাখতে বলে। মানুষের জাতীয় জীবনে উন্নতির পথে আসে হাজারো বিপর্যয়। একুশের চেতনাকে বুকে ধারণ করে আত্মনির্ভরশীল জাতি হিসেবে এসব বাঁধা বিপত্তিকে আমাদের মোকাবেলা করতে হবে প্রবল শক্তিতে। একুশ হলো চেতনার প্রতীক। তাই একুশের চেতনায় উদ্দীপ্ত হয়ে দেশকে সফল, সার্থক ও সুন্দর করে গড়ে তোলার অঙ্গিকার নিয়ে শুরু হোক তরুণ দলের নতুন যাত্রা।

 

Author: নূর-ই ফাতিমা

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts