যান্ত্রিক জীবনের অযান্ত্রিক বোধ

busy life at switzerland

মাস আগের কথা শহরকেন্দ্র থেকে পাবলিক বাসে ঘরে ফিরছি আমার সামনের সিটে আনুমানিক বছরের ঘুমন্ত পরীর মতো সুন্দর একটি শিশুর মুখ তার বাবার কাঁধে চোখ ফেরাতে পারছিলাম না। কিন্তু  এসময় একটি লং ডিসট্যান্স কল আসায় মাথা নিচু করে যথাসম্ভব নিচুস্বরে কথা বলছিলাম হঠাৎ মনে হলো, মাথার চুলের ওপরে যেন কোন পোকা নড়াচড়া করছে অজান্তেই মাথায় হাত দিতে গিয়ে স্পর্শ পেলাম কচি হাতের। মাথা তুলে তাকালাম ছোট্ট পরীটা তার হাত দিয়ে আমাকে ছোঁয়ার চেষ্টা করছে আর মিটি মিটি হাসছে একই স্টপেজে নামলাম, তাই জানলাম ওরা আমরা একই এলাকায় থাকি

তারপর থেকে প্রতিদিন আমি কাজে বেরুবার পথে দেখি বাবা ট্রলিতে ঠেলে মেয়েকে নিয়ে যাচ্ছেন।  আমাকে দেখলেই মেয়েটি অদ্ভুত এক ইইইইইই শব্দ উচ্চারণ করে আমার দিকে হাত বাড়িয়ে দেয়।  আমি তাকে একটু আদর দিয়ে তার হাতে একটি ছোট্ট চকলেট ধরিয়ে দেই কোন দিন আমার একটু দেরি হলে দেখি ওরা নিত্যকার ক্রসিংপয়েন্টে দাঁড়িয়ে আছে।  আর ওদের দেরি হলে আমি অপেক্ষা করি জেনেছি মা বাবা দুজনকেই কাজে যেতে হয় বলে বাচ্চাটিকে ডে কেয়ার সেন্টারে আনা নেয়ার পথেই আমাদের এই সাক্ষাৎ ঘটে।  প্রবাসের এই যান্ত্রিক জীবনের তাড়াহুড়া বা ব্যস্ততার জন্য নূন্যতম সম্ভাষণ,বাচ্চাটিকে আদর চকলেট বিনিময়ের কয়েকটি সেকেন্ড ব্যয় ছাড়া ওদের সাথে আর তেমন কোন কথা বলার সুযোগ এযাবৎকাল হয়নি আর ক্ষণকালীন ভাললাগার রেশ দিনের অন্য কোন সময়ে কখনো মনে এসেছে বলেও স্মরণ নাই

গত সপ্তাহের শেষ দিন অর্থাৎ শুক্রুবার দেখি ওর বাবার বদলে মা  ট্রলি ঠেলে নিয়ে আসছে।  আমাকে দেখে ট্রলি থেকে নেমে ছুটে এলো ছোট্ট পরী। বুকে জড়িয়ে আদর দিতে গিয়ে অনুভব করি তার শরীরে প্রচন্ড জ্বর বলতেই তার মা ত্রস্ত হয়ে ছুটে এলোশরীরে হাত বুলিয়ে বললো,তাইতোঅনেক জ্বর দেখছি।’ দ্রুত ট্রলিতে বসিয়ে তারা চলে গেল

সপ্তাহের দিন আমি যথারীতি ক্রসিং পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকি, বাস না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করি। ওরা আসে না মেয়েটির জ্বর কি এখনে সারেনি ? অজানা অনেক আশংকাকে দুর দুর করে সরিয়ে দিয়ে কায়মনোবাক্যে ওর মঙ্গল কামনা করি ওরা আসে না বলেই ক্ষণিকের ওই  ভাললাগার রেশ মনটাকে আরো বেশ অনেকক্ষণ তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায় যান্ত্রিক এই জীবনে আযান্ত্রিক এক বোধ যেন মনটাকে ভারী করে রাখে চলাচলের পথসময়টাতে

hasan imam
হাসান ইমাম খান​

Author: হাসান ইমাম​ খান​

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Related posts

মতামত দিন Leave a comment