আজকের ঐতিহাসিক ঘটনাবলী: ১৭ জুলাই

বি -২ স্টেলথ বিমান

১৭৯০ – স্কটিশ দার্শনিক ও অর্থনীতিবিদ অ্যাডাম স্মিথ জন্মগ্রহণ করেন​। ১৯৩১ – মুসলিম জাগরণের কবি সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী জন্মগ্রহণ করেন​। ১৫৪৯ – ইহুদিদের গ্র্যান্ট বেলজিয়াম থেকে বহিষ্কার করা হয়। ১৭৭৫ – প্রথম সামরিক হাসপাতালে অনুমোদিত হ​য়​। ১৮৫০ – হার্ভার্ড অবজার্ভেটরি (মানমন্দির) সর্বপ্রথম একটি তারার (ভ্যাগা) ছবি তুলতে সক্ষম হ​য়​। ১৯১৯ – ফিনল্যান্ড সংবিধান গ্রহণ করে। ১৯৪৮ – দক্ষিণ কোরিয়ার সংবিধান ঘোষণা করা হয়। ১৯৮৯ – বি -২ স্পিরিট গুপ্ত বোমারু বিমানের (স্টেলথ) ​প্রথম ফ্লাইট উড্ড​য়ন​।   Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

আজকের ঐতিহাসিক ঘটনাবলী: ৮ জুলাই

Wall-Street-Journal-1st-Publication

১৬৯৩ – আমেরিকান উপনিবেশে ১ম পুলিশ ইউনিফর্ম অনুমোদন করে। ১৭০৯ – পোল্টা যুদ্ধ; রাশিয়ানরা সুইডিশ সাম্রাজ্যেকে পরাজিত করে। ১৮৮৯ – ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সর্বপ্রথম​ প্রকাশিত হয়। ১৮৯২ – আমেরিকান সাইকোলজিক্যাল এসোসিয়েশন সংগঠিত হ​য়​। ১৯১৪ – ভারতীয় বাঙালি কমিউনিস্ট নেতা ও পশ্চিমবঙ্গের নবম মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু জন্মগ্রহণ করেন​। ১৯৭২ – ভারতীয় ক্রিকেটার ও অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জন্মগ্রহণ করেন​। ১৯৯৭ – বাংলাদেশের ১ম প্রধান বিচারপতি ও ষষ্ঠ রাষ্ট্রপতি আবু সাদাত মোহাম্মদ সায়েম মৃত্যুবরণ করেন​।   Share this…FacebookGoogle+TwitterLinkedinPinterestemail

Read More

সম্পাদকীয়

ঈদ মোবারক

ঈদ শব্দটার মধ্যে যেন কি একটা  আছে । কেমন এক রিনিক ঝিনিক বাজনা!  কেমন যেন চঞ্চল হয়ে ওঠে মন। একটা উৎসব উৎসব দোলা লাগে মনে। যে  যাই বলুক না কেন, এটা কিন্তু লাগেই। অনেকে বলেন, আমিও মাঝে মাঝে বলি, এখন আর কিসের ঈদ  । ঈদ ছেলে-মেয়েদের জন্য । এটা ঠিক ছেলেবেলায় ঈদে আমরা উথাল পাথাল আনন্দ করতাম।  সেই অবিরাম ঘোরাঘুরি, সেলামি নেয়ার প্রতিযোগিতা, সেমাই পোলাউ  খাওয়ার ধুম এখন নেই। সম্ভবও না। নাগিরক জীবন এখন অনেক ব্যস্ত। কিন্তু এখনকার  আনন্দটা অন্যরকম। ঠিক সেইরকম, আমাদের ছেলেবেলায় বাব-মায়েরা যেমন আনন্দ পেতেন । সন্তান…

Read More

সম্পাদকীয়

editorial

আজ বাবা দিবস। বিশ্বের সব বাবার প্রতি অনি: শেষ শ্রদ্ধা। বাবা এক অপার ভালবাসা আর অসীম নির্ভরতার নাম। এ নাম নিজেকে উজাড় করে সন্তানের নিরাপত্তা  বিধানের। এ এক উদার বটবৃক্ষ, যার স্নেহময় পত্রপুটের সুশীতল ছায়ায় আমরা নির্বিঘ্ন নিশ্চিন্ত নির্ভয়। আজ সেই বাবাদের স্মরণে একটি দিন। যদিও আমি বিশ্বাস করি, বাবার জন্য পৃথক কোন দিবসের প্রয়োজন নেই। বাবা সন্তানের প্রতি মুহূর্তের সাথি। সাথি আনন্দ-বেদনায়, চিন্তায়-বিনোদনে, প্রাপ্তি আর অপ্রাপ্তিতে।তাই একটি বিশেষ দিনে, বিশেষভাবে তাকে স্মরণ করে স্মরণের গন্ডিটাকে সীমাবদ্ধ করার কোন প্রয়োজন নেই। তারপরও কথা থেকে যায়। পৃথিবী আজ আগ্রাসী যন্ত্রদানবের  চাকায়…

Read More

সে আমার সবচাইতে বড় বন্ধু

  স্ত্রী : ওগো, দেখ, বাইরে থেকে একটা জুতো এসে ঘরে পড়ল। মটকু ভাই : তুমি গান চালিয়ে যাও, তাহলে এর জোড়াটাও এসে পড়বে।   বন্ধুর বাড়িতে দাওয়াতে গেছে মটকু ভাই। হঠাৎ বন্ধুর বউয়ের হাত থেকে চায়ের কাপটা পড়ে ভেঙে গেল। বন্ধু বলে উঠল, গেল। দশ বছরে আমার বউয়ের হাত থেকে পড়ে যত বাসন ভেঙেছে তা দিয়ে এক দোকান হয়ে যেত। শুনে মটকু ভাই বলল, কিন্তু এত ভাঙা বাসন কিনত কে?   বন্ধু : আমার স্ত্রী যার সঙ্গে পালিয়েছে সে আমার সবচাইতে বড় বন্ধু। মটকু ভাই : তাই নাকি? লোকটা…

Read More

সম্পাদকীয়

যার চেতনার রংয়ে পান্না সবুজ আর চুনি লাল হয়ে ওঠে তিনি রবীন্দ্রনাথ। আমাদের চিরচেনা রবীন্দ্রনাথ। আমাদের রক্ত কনিকার বুদ্বুদে, নিঃশ্বাসের আন্দোলনে ,ঘুমের গাঢ়ত্বে, জাগরণের আনন্দে যিনি জেগে থাকেন তিনি রবীন্দ্রনাথ। আমাদের কবিগুরু, বিশ্বকবি, আমাদের সকল ধ্যান, সকল জ্ঞান সকল  আবেগের কেন্দ্রবিন্দু। আমরা তাঁকে আশ্রয় করে বাঁচি, তাঁর প্রশয়ে বাঁচি। যে কোন জরা, প্রাপ্তি, অপ্রাপ্তি, বেদনায় ওপরতলার আমরা তথকে নিম্নতলায় অবস্থান যে রিক্সাওয়ালা, মজুরও জীবনের কোন না কোন সময় রবীন্দ্রনাথকে আশ্রয় করেন। গুণগুণিয়ে গেয়ে ওঠেন, ‘আমি চিনি গো চিনি তোমারে ওগো বিদেশীনি’ কিংবা ‘আমার মুক্তি আলোয় আলোয় এই আকাশে।’ আজ সেই…

Read More

সম্পাদকীয়

শুভেচ্ছা জানবেন। আজ ফাল্গুন মাসের প্রথম দিন। মন রাঙানো দিন। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের রাস্তা দিয়ে যেতে যেতে অবিরাম শুনছিলাম কোকিলের ডাক। পলাশ আরকৃষ্ণচূড়ায় আগুন লেগেছিল বনে বনে। বাসন্তি সাজে তরুণি-যুবতী জানিয়ে দিয়েছিল বসন্ত এসেছে, তার আসন পেতেছে।মেলে দিয়েছে সুবাসিত পল্লবিত ডানা। আর আসছে কাল ভালবাসা দিবস। বসন্তকে সখি করে এলো ভালবাসার দিনটি। এই যুগলবন্ধনে আপ্লুত আমরা। এ এক অদ্ভুত মাস। ভাষা আন্দোলনের গৌরবগাথার মাস, একুশের রক্ত ঝরানোর মাস। আমাদের ভালবাসা  আর শ্রদ্ধার মাস। আমাদের অহঙ্কার আর কাঁদনের মাস। এইত কদিন আগেও আমরা কাঁপছিলাম শীতে। সারাদেশে জাঁকিয়ে পড়েছিল শীত । রাজধানীতে…

Read More

সম্পাদকীয়

  ছেলেবেলা থেকেই সাহিত্য আর সংস্কৃতির মেলবন্ধন ঘটেছিল আমার জীবনে। একটা অভিজাত রাজনৈতিক পরিবারের উদার আবহে আমার জন্ম । আমরা ছিলাম বর্ধিত পরিবারের বাসিন্দা। পরিবারে সবসময়ই বাবা মা ভাইবোনের বাইরে সমাগম ছিল ভিন্ন চিন্তার, ভিন্ন ধর্মের অসংখ্য মানুষের । আমি শৈশবেই ভাগ করে নিতে আর ভাগ দিতে শিখেছিলাম। আপন পরের ভেদ কখনই বুঝিনি, বুঝিনি ধর্ম আর বর্ণের ভেদও। বুঝতে দেননি আমার বাবা-মা। তারা ছিলেন অসাধারণ মানুষ! আমার বাবা বিনা পয়সায় হাসিমুখে গরিব মানুষের মামলা লড়তেন। আর মাকে দিনভোর প্রচুর রাঁধতে হতো। সেই রান্নার মাঝেই মার ঘর্মাক্ত হাতে ধরা থাকত বই।…

Read More