খনা ও তাঁর বচন

আজ থেকে ১৫০০ বছর পূর্বে জন্ম নেওয়া ইতিহাসের এক কিংবদন্তি ‘খনা’ বা ‘ক্ষণা।‘ কোন এক শুভক্ষণে তার জন্ম বলে নাম দেওয়া হয় ‘ক্ষণা।‘ আর ‘ক্ষণা‘ থেকেই ‘খনা‘ নামের উৎপত্তি বলে মনে করা হয়। খনা ছিলেন সিংহল রাজার কন্যা। কথিত আছে, খনার আসল নাম লীলাবতী। তিনি ছিলেন জ্যোতির্বিদ্যায় পারদর্শী। তাঁর রচিত ভবিষ্যতবাণীগুলোই মূলত ‘খনার বচন’ নামে আমরা জানি। খ্রিস্টীয় ৫০০ অব্দে প্রাচীন ভারতবর্ষের অবন্তী রাজ্যের রাজা ছিলেন ‘বিক্রমাদিত্য।‘ তার রাজপ্রাসাদের প্রসিদ্ধ জ্যোতির্বিদ ছিলেন ‘বরাহমিহির।‘ বরাহের ঘরে পুত্রসন্তান জন্ম নিলে নাম রাখেন ‘মিহির।‘ জন্মের পর কষ্ঠি বিচার করে তিনি দেখলেন, শিশুটির পরমায়ু…

Read More

ফ্যাশনে রূপো রহস্য

নারীর সাথে গয়নার সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত।  নারীদের রূপোর তৈরি চিত্তাকর্ষক গয়না ব্যবহার করতে দেখা যায়। সুন্দর এই ধাতু দিয়ে তৈরি কানপাশা, ঝুমকো, কানেরফুল, হাতের চুড়ি, বাজু, বালা, আংটি, টিকলি, টায়রা, নুপুর, নাকফুল, পায়ের আংটি, মল ইত্যাদি নারীরা যুগে যগে ব্যবহার করে চলেছেন। আজ হতে বহুকাল আগে রূপোর ব্যবহার শুরু হয়। শোনা যায়, রূপোর ব্যবহার নাকি সোনার আগে থেকেই হয়ে আসছে। আর এই দীর্ঘ দিনের ব্যবহারের কারণেই রূপো আর যেন গয়নাতে আবদ্ধ সেই। রূপো দিয়ে আজ তৈরি হচ্ছে রকমারী জিনিস যথা- পালকি, পিয়ানো, খড়ম, বাসন-কোসন ইত্যাদিসহ বহু নন্দিত উপহার সামগ্রী।

Read More

প্রেম

ব্যাবিলনের শূন্যোদানের মতো প্রেম কালিন্দি কূলে উতলা ঢেউ বয়ে যায় নিরন্তর কৃষ্ণবিহিন বিরহি মথুরা বৃন্দাবন কৃষ্ণবাঁশীতে পুড়তো যেমন রাধা বিনোদিনি তেমন করে পোড়ে কি তোমার মন ! আকাশের ভাঁজে ভাঁজে মেঘের শিল্পকলায় স্বপ্ন রেখেছি নিভাজ নিপাট মেঘ বালিকা অভিমানী তুমি খুলে দাও হৃদয়ের বন্ধ কপাট । বিমুগ্ধ আকাশ মেঘের ভেলায়,রঙ্গের খেলায় ধরে কি রাখেনা মেঘবতী জল যমুনা তীরে বয়ে যায় খেয়ালী বাতাস মমতাজ প্রেমে হয়েছে বির্মূত তাজমহল । কখনো বসন্ত সমীরন, কোকিলের কুহুতান ভরা ভাদরের বিরহী শ্রাবন ঝরে ঝরঝর স্মৃতিময়তায় কোজাগরী বিনিদ্র দীর্ঘশ্বাস পোড়ায় প্রেম , পোড়ায় প্রেমময় অন্তর ।…

Read More

কবি জীবনানন্দ দাশ স্মরণে

আজ কবি জীবনানন্দ দাশের জন্মদিন​। জীবনানন্দ দাশ বিংশ শতাব্দীর অন্যতম প্রধান আধুনিক বাঙালি কবি, লেখক, প্রাবন্ধিক এবং অধ্যাপক। তাকে বাংলাভাষার ‘শুদ্ধতম কবি’ বলে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে। তিনি বাংলা কাব্যে আধুনিকতার পথিকৃৎদের মধ্যে অগ্রগণ্য। প্রধানত কবি হলেও তিনি বেশ কিছু প্রবন্ধ-নিবন্ধ রচনা ও প্রকাশ করেছেন।  ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে অকাল মৃত্যুর আগে তিনি নিভৃতে ২১টি উপন্যাস এবং ১০৮টি ছোটগল্প রচনা গ্রন্থ করেছেন যার একটিও  জীবদ্দশায় প্রকাশ করেননি। তাঁর জীবন কেটেছে চরম দারিদ্রের মধ্যে।  রবীন্দ্র-পরবর্তীকালে বাংলা ভাষার প্রধান কবি হিসাবে তিনি সর্বসাধারণ্যে স্বীকৃত। জীবনানন্দ দাশ ১৮৯৯ খ্রিস্টাব্দের ১৭ ফেব্রুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির অন্তর্গত বরিশাল শহরে জন্মগ্রহণ করেন।…

Read More

সিলভিয়া প্লাথ – এক  বিষাদ রাজকন্যা

সিলভিয়া প্রতিভাময়ী কবি, ঔপন্যাসিক, মানসিক অস্থিতিশীলতার বলি এক বিষাদ রাজকন্যা। ২৭ অক্টোবর ১৯৩২ সালে জন্ম  নেয়া সিলভিয়া বরাবরই ভাল ছাত্রি।  মাত্র ৮ বছর বয়সে পিতৃহীন হয়েছিলেন। পিতৃহীন মেয়েটি আর ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস রাখতে পারেননি। বিষাদবিধুরতা আর হতাশার সেখন থেকেই শুরু। বাবার সমাধি দেখে এসে  লিখেছিলেন, ‘ইলেকট্রা অন  এজেলা পাথ।’ স্কুলের পাট চুকিয়ে স্মিথ কলেজ থেকে সর্বোচ্চ সম্মান নিয়ে স্নাতক হন। তারপর ফুলব্রাইট স্কলারশিপ নিয়ে পড়তে যান কেমব্রিজে। আর  সেখানেই প্রবলভাবে আকৃষ্ট হন টেড হিউজের কবিতার প্রতি। সিলভিয়ার আগ্রহেই তাঁদের পরিচয় ঘটে ১৯৫০ সালে। এক অদ্ভুত জটিল ভালবাসার মধ্য দিয়ে  বিয়ে…

Read More

১৭ই ফেব্রুয়ারি

  ৩৬৪ – রোমান সম্রাট জোভিয়ানের মৃত্যু। ১৬০০ – দার্শনিক ব্রুনোকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ১৮৫৪ – যুক্তরাজ্য কর্তৃক অরেঞ্জ ফ্রি স্টেটের স্বীকৃতি প্রদান। ১৮৬৫ – আমেরিকান গৃহযুদ্ধ: অগ্রসরমান ইউনিয়ন বাহিনীর কাছ থেকে কনফেডারেটদের পলায়নের ফলে কলম্বিয়া আগুনে পুড়ে যায়। ১৮৭১ – ফরাসি-প্রুসিয়ান যুদ্ধে প্যারিস অবরোধ সমাপ্ত হওয়ার পর বিজয়ী প্রুসিয়ান বাহিনী প্যারিসে প্যারেড করে। ১৮৯৯ – বিংশ শতাব্দীর অন্যতম প্রধান আধুনিক বাংলা কবি জীবনানন্দ দাশ জন্মগ্রহণ করেন​। ১৯১৯ – বলশেভিকদের সাথে লড়াইয়ে সহায়তার জন্য ইউক্রেনীয় প্রজাতন্ত্র কর্তৃক ত্রিপক্ষীয় মৈত্রী এবং যুক্তরাষ্ট্রের কাছে আবেদন করা হয়। ১৯৩৩ – নিউজউইক…

Read More