মুকুটহীন সম্রাট ‍শিল্পি এস এম সুলতান / লেখক লেঃ কর্ণেল সৈয়দ হাসান ইকবাল (অব.)

নড়াইলের গৌরব বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের জন্ম ১০ আগষ্ট ১৯২৩ নড়াইল জেলার সদর উপজেলার মাছিমদিয়া গ্রামের এক কৃষক পরিবারে। তাঁর ডাকনাম  লাল মিয়া। ছোটবেলায় সকলে তাকে লাল মিয়া বলেই ডাকতো। শিল্পি জীবনের মূল সূর-ছন্দ খুঁজে পেয়েছিলেন বাংলার গ্রামীণ জনপদের মাটি ও মানুষ তথা কৃষক, ‍কৃষিকাজ ও প্রকৃতির মধ্যে। আবহমান বাংলার সেই ইতিহাস-ঐতিহ্য, বিপ্লব-সংগ্রাম এবং বিভিন্ন প্রতিকুলতার মধ্যেও টিকে থাকার ইতিহাস তাঁর শিল্পকর্মকে সবচেয়ে বেশী প্রভাবিত করেছে। শিল্পির চিত্রে গ্রামীণ জীবনের পরিপূর্ণতা, প্রাণ প্রাচুর্যেরে পাশাপাশি শ্রেণী দ্বন্দ্ব ও গ্রামীণ অর্থনীতির রূপ অনেকটাই ফুটে উঠেছে। ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বাংলাদেশের গ্রামীণ প্রকৃতিকে…

Read More

সেই সব নানা রঙ এর দিন গুলি ‍‌।।পর্ব ১২।।/ শামসুল আরেফিন খান

জুডাসের  চুমু ও বিভীষণ যুগে যুগে বিষাক্ত কেউটে   সাপের নিবিড় চুমু মানে নির্ঘাৎ মরণ। বিশ্বাসঘাতক জুডাসের  চুম্বন ছিল তার চাইতেও ভয়ানক এবং ঘৃণ্য।ধর্মাবতার যিশুর সব থেকে বিশ্বস্ত ও ঘনিষ্ঠ  ১২ শিষ্য এবং অনুসারীর অন্যতম সেই নরাধম জুডাস মানবজাতির কলঙ্ক । জেরুজালেমের রোমান  কর্তৃপক্ষ যিশুকে রাজদ্রোহী ঘোষণা করে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছিল। চারিদিকে অনুচর পাঠিয়েছিল  তাঁকে গ্রেফতার করার জন্য। কিন্তু রোমানরা কেউ তাকে চিনতো না আর স্থানীয় আরবরা সবাই ছিল যিশুর ভক্ত । সেটাই ছিল তাদের  সবচেয়ে বড় সমস্যা।। সাতিল আরব ছিল তখন রোমানদের পদানত। রোম সম্রাট দাবি করতেন তিনিই ঈশ্বর।…

Read More

উন্নয়নের পৃথিবীতে পরিবেশ বিপর্যয়/ আইয়ুব হোসেন

সাম্প্রতিক বিশ্বে আহার, বাসস্থান, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন সঙ্কট ক্রমশঃ ঘনীভূত। বৃহৎ, পরাশক্তি ও বাজার অর্থনীতির কারণে আসন্ন সভ্যতার ভয়াবহ সংকটের ঘনঘটা আকাশে বাতাসে। ক্রমবর্ধিত জনসংখ্যার বিস্ফোরণে তাবৎ বিশ্ববাসী ভীত। এশিয়ার এই দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য আশংকার খবর হলো- পৃথিবীর সবচাইতে ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চল হচ্ছে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া। চলতি শতাব্দীর শেষে গিয়ে এ অঞ্চলের লোকসংখ্যা আরও সোয়া’শ কোটি বৃদ্ধি পেয়েছে। পৃথিবীতে যে দু’শ কোটি লোক বাড়বে তার ৬০% বাড়বে এই স্বল্প পরিসরের এলাকাতেই। তখন পরিবেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্য হবে  তীব্রভাবে বিপর্যস্ত। বর্তমান পৃথিবীর ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার প্রয়োজনীয় বিভিন্ন চাহিদার জন্য বৃহৎ শক্তিগুলো বা কিছু ধনশালী…

Read More

আমিনুল ইসলামের কবিতায় অর্থনীতির অনুষঙ্গ/ মোঃ রফিকুল ইসলাম

মানবজীবনের অর্থনৈতিক কার্যাবলী নিয়ে যে শাস্ত্র আলোচনা করে– এক কথায় তাই হলো অর্থনীতি। আর আজকের আধুনিক সমাজে মানুষের প্রত্যেকটি কাজই কোন না কোন ভাবে অর্থনীতির সাথে জড়িত। অসীম অভাব ও সীমাবদ্ধ সম্পদের এই পৃথিবীতে মানুষ তার অর্থনৈতিক সমস্যা সমাধানের জন্য প্রতিনিয়ত যে কাজগুলো করে যাচ্ছে তাহলো– উৎপাদন, বন্টন, বিনিময় ও ভোগ। পৃথিবীর সব দেশের অর্থনীতিতে অর্থনৈতিক সমস্যা সমাধানের এই চারটি স্তর বা প্রক্রিয়া বিদ্যমান থাকলেও, ঐ সমস্ত দেশের রাজনৈতিক ও আর্থ–সামাজিক কাঠামোর উপর ভিত্তি করে এগুলোর পদ্ধতিগত পার্থক্য নির্ণীত হয়। তাই, একটি পুঁজিবাদী দেশ, সমাজতান্ত্রিক দেশ ও মিশ্র অর্থনীতির দেশের…

Read More

ঈদের আনন্দ/ফিরোজ শ্রাবন

প্রতিটি ঈদ আসে আমাদের জীবনের খুশির বার্তা নিয়ে আর চলে যায় আবেশ ছড়িয়ে। দূর দুরান্তের মানুষগুলো ফিরে আসে মাটির টানে বাবা মায়ের সাথে ঈদ করতে । শিকড়ের প্রতি মানুষের এই অমোঘ নিয়ম যেন হারিয়ে না যায় তার নিরন্তন চেষ্টায় সবাই ব্যাকুল। আবার কেউ কেউ ঈদের ছুটিতে ঘুরে বেড়ায় দেশ থেকে দেশান্তরে। মনে হয় ঈদের এই খুশির প্রতিটি মহূর্ত কেউ হাতছাড়া করতে চায় না । আবার কেউবা এই সুযোগে বিয়ে শাদির কাজটাও সেরে ফেলেন । কর্মব্যস্ততায় আসলে বিয়ে করার মত সময়ও যেন তারা পায় না, বিশেষ করে যারা চাকুরীজিবিরা। আমাদের দৈনন্দিন…

Read More

ঈদুল আজহা এবং কোরবানি/ মাসুদ রানা

ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় দুটো ধর্মীয় উৎসবের একটি হলো ঈদুল আজহা। বাংলাদেশে এই উৎসবটি ‘কোরবানির ঈদ’ নামে পরিচিত। ঈদুল আজহা মূলত আরবি বাক্যাংশ। এর অর্থ হলো ‘ত্যাগের উৎসব’। আসলে এটির মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ,ত্যাগ করা। এ দিনটিতে মুসলমানেরা তাদের সাধ্যমত ধর্মীয় নিয়মানুযায়ী উট, গরু, দুম্বা কিংবা ছাগল আল্লাহর নামে কোরবানি করে বা জবাই দেয়। ঈদ উল আজহার নামাজ : ঈদ উল আযহার নামাজ দুই রাক্বাত। এটি সকল মুসলমান পুরুষের জন্য ওয়াজিব এবং মুসলমান নারীদের জন্য সুন্নত। এ নামাজ জামায়াতের সঙ্গে আদায়যোগ্য। বাঙালি মুসলমানরা নামাজের পরে পুরো পরিবার একত্রে সকাল…

Read More

প্রিয় বঙ্গবন্ধু / ফিরোজ শ্রাবন

যদি রাত পোহালে শোনা যেত বঙ্গবন্ধু মরে নাই’..। গানটির গীতিকার জনাব হাসান মতিউর রহমানের সাথে আমার দেখা করার সৌভাগ্য হয়েছে । কিন্তু আপনার  সাথে যদি দেখা হত তাহলে আপনাকে একটা প্রশ্ন করতাম, এত মানুষের মাঝে আপনি কেন এই দেশকে নিয়ে ভেবেছেন? আরও তো অনেক বড় বড় ডিগ্রিধারী শিক্ষিত মানুষও ছিল এই দেশে? হয়ত উত্তরে আপনি বলতেন,  ‘আমি বঙ্গবন্ধু তাই’। আমরা যারা মা বাবার চোখে সুসন্তান তারা কখনও কোন কাজ করতে গেলে বাবা মা আমাদের বারণ করেন অথবা সাবধান করে দেন। যদি আমরা তা না শুনি তখন তারা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা…

Read More

বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ, বাংলাদেশ মানেই বঙ্গবন্ধু/ লেঃ কর্ণেল সৈয়দ হাসান ইকবাল (অব.)

১। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমা , বাঙালি জাতির স্বাধীকার আন্দোলনের রূপকার । তারই বজ্রকন্ঠে জেগে ওঠে পুরো বাঙালি জাতি। বাঙালি জাতির সংগ্রাম, বিপ্লব সেটার উত্থান ঘটিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। তিনি আমাদের শিখিয়েছেন বাঙালি জাতি বীরের জাতি। দীর্ঘ ২৩ বৎসরের সংগ্রামের ফসল হিসাবে বাংলাদেশ নামের একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল ১৯৭১ সনের ১৬ই ডিসেম্বরে দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে। বিখ্যাত ব্রিটিশ সাংবাদিক ডেভিট ফ্রষ্ট (১৯৭২ সনের এক সাক্ষাৎকার) বঙ্গবন্ধুকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ‘ আপনার শক্তি কোথায়?’  বঙ্গবন্ধু অকপটে উত্তর দিয়েছিলেন, ‘‘আমি আমার জনগণকে ভালবাসি।’’ ডেভিট ফ্রষ্ট পুনরায় বঙ্গবন্ধুকে জিজ্ঞাসা…

Read More

প্রণমি তোমায় পিতা/ অনুপা দেওয়ানজী

১৫ই আগস্টের সকাল। সবে সিলেট থেকে ঢাকাতে এসেছি। ঘর দুয়ার এখনো ভালো করে গোছানো হয়নি। মালপত্র কিছু কিছু ঘরে এসেছে, বাকিটা অফিসের গোডাউনে। বিছানা ছেড়ে উঠবো উঠবো করছি এমন সময় প্রতিবেশীর রেডিও থেকে হঠাৎ খুব উচ্চগ্রামে অদ্ভুত আর অবিশ্বাস্য এক কন্ঠস্বর ভেসে আসতে লাগলো, ‘শেখ মুজিবকে  হত্যা করা হয়েছে। জননেতা খন্দকার মোশতাক আহমদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করেছে। দেশে সামরিক আইন জারি করা হয়েছে এবং সারাদেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে।’ ইত্যাদি, ইত্যাদি। আমার মাথায় যেন বজ্রাঘাত হলো। লাফ দিয়ে বিছানা ছেড়ে উঠে পড়লাম। এ কী শুনলাম আমি? আমার মাথা…

Read More

ঢুলিগঞ্জের দেবতাগণ/ মঈনুল হাসান

জায়গাটার নাম ঢুলিগঞ্জ ঠিক কবে কোত্থেকে হলো তা কেউ জানে না। অতসব খুঁজতে গেলে পাঁজি-পুঁথি বা ইতিহাস ঘেঁটে বের করতে হবে হয়তো। কিন্তু, তারপরও পাঁচ গ্রাম ছাড়িয়ে এর সুখ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছিল বহুদিন আগে। দোলাইয়ের তীর ঘেঁষে কাঁচা-পাকা ইমারতের ফাঁকে ফাঁকে তখন গড়ে উঠছিল চালের বিশাল বড় মোকাম। মহাজনদের চালকলের গদিঘর ছেড়ে অল্পদূর গেলেই এখন যে খেয়াঘাট দেখা যায় আজও সেখানে ভিড় করে রাজ্যের বড় বড় যত ইঞ্জিনের নৌকা। সবাই আসে ব্যবসাপাতির নানারকম বায়না নিয়ে, যারা সবসময় সরগরম করে রাখে বাজারের চৌহদ্দি। দূর থেকে বাণিজ্য করতে আসা এসব ব্যাপারী আর বারোয়ারি…

Read More