সেই সব নানারঙের দিনগুলি-২: সুন্দর তুমি চক্ষু ভরিয়া এনেছ অশ্রুজল/ শামসুল আরেফিন খান

পৃথিবীর যত অন্ধকার  আছে সবই আলোর কাছে হার মানে।তাইতো গুণীজনেরা বলে  থাকেন, রাতের আঁধার যত ঘনঘোর হবে , ভোর হবে ততো উজ্জ্বল। ঊষার আলোর উদ্ভাস হবে ততোই তীক্ষ্ণ তীব্র।- “উষার দুয়ারে হানিয়া আঘাত /  আমরা আনিব রাঙা প্রভা/ ,আমরা টুটাব তিমির রাত / বাধার বিন্ধ্যাচল/ নবজীবনের গাহিয়া গান/ সজীব করি মহাশ্মশান/ আমরা দানিব নতুন প্রাণ”। কিন্তু পৃথিবীর সব আলো যদি অন্ধকারের কাছে হেরে যায়  তাহলে ? তাহলে কী হবে? মহাপ্রলয়ে পৃথিবী কী ধ্বংস হয়ে যাবে? অন্ধবিশ্বাসের  ন‘মণ বোঝা নিয়ে জ্ঞানপাপী ও মূর্খের দল খুব সরব, উচ্চকন্ঠ , সোচ্চার।কলহ বিবাদে দ্বন্দ্ব…

Read More

গতানুগতিক/আহমেদ শরীফ শুভ

টিভিটা ছাড়াই ছিল। সংবাদে কান যেতেই নাইমা’র মনোযোগে চিঁড় ধরলো। তার দৃষ্টি ছিল অরুণের চোখে। মনোযোগ ছিল তার জামার বোতামে। এই ব্যাপারে নাইমা আর পাঁচটা মেয়ের মতো নয়। ওর কথা শুনে শিউলি অবাক হয়েছিল।   তুই সত্যি একটা যা তা। কী যে বলিস!   কেন আমি কি চুরি করছি, নাকি অন্য কোন অপরাধ করছি? চোখ বন্ধ করে রাখবোই বা কেন, নিচের দিকেইবা তাকিয়ে থাকবো কেন?   তোর লজ্জা করে না বুঝি!   ধুর গাধী! কলেমাও পড়েছি, কাগজেও সই করেছি। লজ্জা করবে কেন? জামাই বলে কথা। আমি যা কিছু করি ওর…

Read More

গ্রেটওয়ালের দেশে- ২৭তম পর্ব / শরীফ রুহুল আমীন

আট জানুয়ারি দুহাজার সতেরো। রোববার। আজ আমরা পিকিং ইউনিভার্সিটি দেখবো বলে বেরিয়েছিলাম। কিন্তু পিকিং ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের প্রধান ফটক বন্ধ ছিল বলে সেটি সম্ভব হলো না। ইউনিভার্সিটিতে পরীক্ষা চলছিল বিধায় এসময় ক্যাম্পাসে সাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ বলে গেটকিপার জানালেন। সুতরাং সেখান থেকে আমরা বেইজিং এর বিখ্যাত ল্যাণ্ডমার্ক সিসিটিভি দেখতে চললাম। সিসিটিভি চায়না সেন্ট্রাল টেলিভিশন টাওয়ার যা বেইজিং এর কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত। ৪০৫ মিটার উঁচু এই টাওয়ার শীর্ষে রয়েছে একটি ঘূর্ণায়মান রেস্তোঁরা বা রোটেটিং রেস্টুরেন্ট। পর্যটকরা এ রেস্তোঁরায় আরোহন করে ঘুরতে ঘুরতে চা নাশতা বা ভোজন করতে পারেন। তবে তা বেশ ব্যয়বহুল। এখানে কিছু…

Read More

দূর / সৈয়দা জান্নাত

আমি ও তোমাকে ওই চাঁদের মতো দুর থেকে দেখে যাবো, ঘনো কালো আধাঁরের মাঝে, তোমার এতো রূপ আমি তো বারা বার প্রেমে পড়ি। তুমি আমার হৃদয় মাঝে এক সুর তোলো, সেই সুরের মূর্ছনাতে আমি বার বার মুগ্ধ। তাই তো তোমার ও হাসিটা আমাকে তোমার কাছে টানে, তুমি আছো অজানা কোন এক দীপপুঞ্জে, যেখানে আমার ভালোবাসার করুণ সুর তোমার কান পর্যন্ত পৌছাবে না। তুমি কি কখনোই বুঝবেনা আমার এই আকুলতা, বার বার ছুটে গিয়ে ক্ষতবিক্ষত হয়ে মলিন মুখে তোমাকেই দেখেছি, এ যে এক অসীম ভালোবাসার টান যা তুমি কোন দিন বুঝবে…

Read More

জ্বলে ভিসুভিয়াসের আগুন/ ড. নিগার চৌধুরী ( হলি আর্টিজনের ঘটনা স্মরণে)

অতিথি আপ্যায়নের ঐতিহ্যের বরণ ডালায় ভালবাসার সরোবরে, বিষাক্ত সরিসৃপের ছোবল যুথী কামিনী রজনীগন্ধার শ্রভ্রবসনে জবা কৃষ্ণচূড়া পলাশের রঙের ঝলক। আমার দুহাত ভরা গুচ্ছ গুচ্ছ কদম ফুলের শরীর গড়িয়ে গড়িয়ে, তির তির করে ঝরছে উষ্ণ রক্ত। নির্ঘুম রাত কষ্টে কষ্টে দিশাহারা কালিদাসের ভ্রমণ বিলাসী পূর্ব মেঘ, উত্তর মেঘ বিভ্রান্ত; থেমে আছে গুলশানের ঊনাশি নম্বর সড়কে- স্তম্ভিত, তাকিয়ে আছে ‘হলি আর্টিজান’ নামের চির বিরহের, চির বিচ্ছেদের শোক মহলে। রাতদিন চলছে দুঃখের   নৈবেদ্য নিবেদন লজ্জায় ঘৃণায় মুখ ঢাকে অসহায় প্রিয় স্বদেশ- আমার বুকে দাউ দাউ জ্বলে বিসুভিয়াসের আগুন। ড. নিগার চৌধুরী

Read More

রাজনৈতিক উত্তরণ ও নারী অধিকার

বর্তমানে আমরা একটা বিশ্বগ্রাম বা গ্লোবাল ভিলেজে বসবাস করছি। আমাদের সাংস্কৃতিক যোগাযোগ অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি। মানবজাতির অর্জন ও সাফল্য বর্ণনা করে শেষ করা যাবে না। এতো সত্ত্বেও সবসময় একটা কৌতীহলোদ্দীপক প্রশ্ন সামনে এসে দাঁড়ায়। কোন ধরনের সমাজ নারী বান্ধব? তার মানে কোন ধরনের  শাসন ব্যবস্থায় নারী সবচেয়ে নিরাপদ? কেননা, আমাদের জানা ইতিহাসে নারীর নিরাপদ জীবন কোথাও কোনদিন ছিল না। এমন কি সমাজ ও রাষ্ট্রে নারীর অংশগ্রহণকে কটাক্ষের চোখে দেখা হতো। নারী জীবনের সবচেয়ে দুঃখজনক বিষয় হলো পারিবারিক সহিংসতা।   ইতোমধ্যে সমাজ অগ্রগতির পথ পরিক্রমায় অনেক ধরনের শাসন…

Read More

গ্রেটওয়ালের দেশে – ২৬তম পর্ব

আরেকটু এগিয়ে গেলেই একটি স্কি রিসোর্ট। নান্দনিক এ স্কি রিসোর্টটি ব্যক্তি উদ্যোগে তৈরি। চীনের হারবিন প্রদেশ হলো তুষারের স্বর্গরাজ্য। পুরো শীত ঋতু জুড়ে এখানে ব্যাপক তুষারপাত হয় আর বছর জুড়েই এখানে বরফের আস্তর থাকে। কিন্তু বেইজিং ঠিক সেরকম নয়। শীতকালে তাপমাত্রা শূন্যের নিচে চলে গেলেও গত দুমাসে এখানে তুষারপাত প্রত্যক্ষ করলাম মাত্র দুবার দুদিন। তাই স্কি রিসোর্টটি হারবিন বা অন্য কোনো প্রদেশ থেকে বরফ ও তুষার এনে তৈরি করা হয়েছে উৎসাহী বেইজিংবাসীর স্কি বা স্কেটিং- এর শখ মেটাবার জন্য। পাশেই রয়েছে সুবিশাল হ্রদ। হ্রদের পানির ওপর পুরু বরফের আস্তর ।…

Read More

সেই সব দিনগুলি-১: চিহ্ন তব পড়ে আছে তুমি হেথা নাই/ শামসুল আরেফিন খান

পরম প্রিয় সুহৃদ শুভ হঠাৎ করেই চলে গেলো। আমার ছোটবেলার আর কোন অকৃত্রিম বন্ধুই সপ্রাণ স্পন্দিত  রইলোনা এই রূঢ় পৃথিবীতে। ।কুসংস্কৃার ও মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে সরব, চিন্তাশীল লেখক কবি সাংবাদিক নিবন্ধকার ও অন্ধ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে অনমনীয়  আপোসহীন যোদ্ধা আমার পরমপ্রিয় সাথীর অনুপস্থিতিতে আজ এ বয়সে যেন বড় একা হয়ে গেলাম।পাঠকের মনের সব   অন্ধকার সরাতে ইতিহাসের  উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত টেনে অসির চাইতে ক্ষিপ্র মসি চালিয়েছে যে অক্লান্ত   কলমযোদ্ধা , সে চলে গেলো অনেক অন্যায়-বঞ্চনার অভিমান নিয়ে। কলমযুদ্ধে অপরাজিত  সৈনিক জীবনযুদ্ধেও কখনও হার মানেনি।আপোস করে বিবেকের একইঞ্চি জমিনও ছাড়েনি আমার পরমপ্রিয়  বন্ধু শুভ রহমান।স্বচ্ছ…

Read More

রু মোপাসাঁ/ শাহনাজ পারভীন

অভির ইচ্ছে ছিল ও কাশবনের কবি হবে। সবাই যখন মহাকবি, বিশ্ব কবি, জাতীয় কবি, পল্লীকবি, রেনেসাঁর কবি, নৈঃশব্দ্যের কবি ইত্যাদি নানা অভিধায় উপাধিতে ভূষিত কবি হয়েছেন, সেখানে ওর বেশি কিছু চাওয়ার নেই। ও নিটোল কাশবনের কবি হতে চায়। এ স্বপ্নটা ওর আজন্ম। সরকারী এম এম কলেজে এইস এসসি পড়ার সুবাদে যখন প্রথম হাঁটি হাঁটি পা পা করে গ্রাম থেকে যশোর শহরে পা রাখে, সেই তখন থেকেই। ওর এলাকার ছেলেরা যখন ঝিনাইদহ কেসি কলেজে ভর্তি হবার স্বপ্ন দেখেছিল, ও তখন এক ধাঁপ এগিয়ে ছিল যশোর এম এম কলেজ পর্যন্ত। কলেজে ভর্তি…

Read More

লাস্ট ডিজিট ৫৬/ রনি রেজা

মোবাইল ফোনটা বেজেই চলছে। বিরক্তিকর ব্যাপার। যখন একটু তাড়াহুড়া লাগে তখন ফোনও বেয়াড়া হয়ে ওঠে। অনুষ্ঠান শুরু হবার কথা সকাল ১০টায়। ইতিমধ্যে ৮টা বেজে গেছে। এখনই বের না হলে সময়মতো পৌঁছানো যাবে না। এখনও আবার শাড়ী পড়া হয়নি। একা একা শাড়ী পড়ার অভ্যেস খুব একটা নেই। সব মিলিয়ে মেজাজ খিটমিট অবস্থা। বিরক্তি সহকারে মোবাইল ফোনটা হাতে নেয় অনামিকা। ওমনি বুক ধুকপুক অবস্থা। স্ক্রিনে ভাসছে সেই পরিচিত লাস্ট ডিজিট ৫৬। হ্যাঁ সাগরই। শান্ত সাগর। চার বছর আগে এ নম্বর থেকে ফোনের জন্য নিয়মিত অপেক্ষা করতো অনামিকা বারী। এখনো কি করে না?…

Read More